সুনামগঞ্জে হাসপাতাল-কমিউনিটি ক্লিনিক প্লাবিত, সেবা পেতে ভোগান্তি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সুনামগঞ্জ
প্রকাশিত: ১১:৩৬ এএম, ২১ মে ২০২২

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জে নদী উপচে জনবসতিতে পানি প্রবেশ করায় দুর্ভোগ বেড়েছে। জেলার ছাতকের কৈতক ২০ শয্যা হাসপাতালসহ তিন উপজেলার পাঁচটি কমিউনিটি ক্লিনিক প্লাবিত হওয়ায় বিঘ্নিত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা।

সরজমিনে দেখা যায়, ছাতকের কৈতক ২০ শয্যা হাসপাতালের ভেতরে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে হাঁটুসমান পানি। কেন্দ্রের সামনের যোগাযোগ সড়কে কোমর সমান পানি। দূর-দূরান্ত থেকে আসা রোগীরা সেই পানিতে ভিজেই হাসপাতালে প্রবেশ করছেন। আর সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়ছেন হাসপাতালে আসা অন্তঃসত্ত্বা নারীরা। তাদের কোলে নিয়ে হাঁটুসমান পানি পাড়ি দিয়ে হাসপাতালের নিতে দেখা গেছে। এছাড়া হাসপাতালের পাশাপাশি চিকিৎসক ও নার্সদের আবাসিক ভবনও নিমজ্জিত হয়েছে।

সুনামগঞ্জ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সূত্রে জানা যায়, জেলার ছাতকের একটি হাসপাতাল ও একটি কমিউনিটি ক্লিনিক, তাহিরপুরে তিনটি কমিউনিটি ক্লিনিক ও দোয়ারা বাজারে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় ৪০ হাজার মানুষের স্বাস্থ্যসেবা পেতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

Sunamganj-3.jpg

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা আফছার উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, আমি দুর্গাপাশা ইউনিয়ন থেকে স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে আসছি। হাসপাতালের সামনে এসে দেখি কোমর সমান পানি। পরে স্ত্রীকে কোলে নিয়ে হাসপাতালের ভেতরে প্রবেশ করি।

আরেক ব্যক্তি মনু মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, দুইদিন ধরে হাসপাতালে ছেলেকে নিয়ে ভর্তি। হাসপাতাল থেকে বাইরে যাওয়ার কোনো রাস্তা নেই। চারদিকে পানি এমনকী হাসপাতালের নিচতলাও প্লাবিতে হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সাফিয়া বেগম জাগো নিউজকে বলেন, হাসপাতালে এসেছিলাম ডাক্তার দেখাতে এখন হাসপাতালের সামনে কোমর সমান পানি দেখে ডাক্তার না দেখিয়ে চলে যাচ্ছি।

Sunamganj-3.jpg

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা জয়তুন নেছা জাগো নিউজকে বলেন, অনেক কষ্টে করে হাসপাতালে এসে ডাক্তার দেখিয়ে বাসায় যাচ্ছি। তবে হাসপাতালে ভেতরে পানি ঢুকে পড়ায় আমাদের অনেক ভোগান্তি হয়েছে।

কৈতক ২০ শয্যা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রুবাইয়া ফেরদৌস জাগো নিউজকে বলেন, ভোগান্তির মধ্যেও চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রেখেছি।

সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল্লাহ আল বেরুনি খান জাগো নিউজকে বলেন, ছাতকের কৈতক হাসপাতালসহ পাঁচ কমিউনিটি ক্লিনিকে পানি উঠেছে। বিকল্প স্থানে স্বাস্থ্যসেবা চালু রাখা হয়েছে।

লিপসন আহমেদ/এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]