১১ ঘণ্টাতেও স্বাভাবিক হয়নি ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেল যোগাযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৯:৩২ এএম, ২৮ মে ২০২২
ফাইল ছবি

১১ ঘণ্টাতেও স্বাভাবিক হয়নি ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের রেল যোগাযোগ। শুক্রবার (২৭ মে) রাত ১০টার দিকে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক এলাকায় ঢাকাগামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনসহ দুটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে পড়ার পর থেকে ওই রেল রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনের ইনচার্জ রেজাউল ইসলাম জানিয়েছেন, রাত ১২টার দিকে ঢাকা থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। শনিবার (২৮ মে) সকাল ৯টা পর্যন্ত দুর্ঘটনা কবলিত ইঞ্জিন ও বগি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে উদ্ধার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। দুপুরের আগেই ওই রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হতে পারে।

এদিকে শুক্রবার রাতে ঢাকাগামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটের ইঞ্জিন ও বগি লাইনচ্যুত হওয়ার পর ঢাকাগামী যাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। অনেকে নারী ও শিশুদের নিয়ে পড়েন নানা সমস্যায়। অনেকে বিকল্প সড়ক পথে কালিয়াকৈরের মৌচাক ও সফিপুর দিয়ে বাসে করে ঢাকার উদ্দেশে চলে যান। অনেকে চন্দ্রা দিয়ে সাভার হয়ে ঢাকার দিকে যান।

অপরদিকে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় কুড়িগ্রামগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস জয়দেবপুর স্টেশনে ও ঢাকাগামী জামালপুর এক্সপ্রেস মির্জাপুর রেল স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকার পর অনেক যাত্রী রাতে ও সকালে বিকল্প পথে গন্তব্যে চলে যান। তবে রাত হয়ে যাওয়ায় এসব ট্রেনের অনেক যাত্রী রাস্তায় নানা সমস্যা হতে পারে আশঙ্কায় রাতে ট্রেনেই রাত্রী যাপন করেন। সকালে বাসে করে গন্তব্যে রওনা হন।

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার পর ট্রেনের যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য সারা রাত রেলওয়ে পুলিশ কাজ করেছে। ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ যাত্রীদের নিরাপত্তায় কাজ করে যাবে।

আমিনুল ইসলাম/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]