শায়েস্তাগঞ্জে তলিয়ে গেছে ৫০০ হেক্টর জমির আউশ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ)
প্রকাশিত: ০৬:৪৭ পিএম, ২৬ জুন ২০২২
বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে হেক্টরের পর হেক্টর জমির আউশ

টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি বন্যায় হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চলের অন্তত ৫০০ হেক্টর ফসল তলিয়ে গেছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন কয়েক হাজার কৃষক।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার মররা, নিশাপট, কাজীরগাও, ঢাকিজাংগল, লাদিয়া, ফরিদপুর, বারলাড়িয়া, চণ্ডিপুর, নোয়াগাও, পুরাসুন্দা, কেশবপুর, উলুহর, পুটিয়া, শৈলজুড়া, বাখরনগর গ্রামের নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে।

উপজেলার কাজীরগাও গ্রামের কৃষক মো. ইউসুফ মিয়া বলেন, ৭২ শতক জমির আউশ ধান বানের পানিতে তলিয়ে গেছে। আমার মতো অনেকের জমি পানির নিচে। এখন আমরা দিশেহারা।

বারলাড়িয়া গ্রামের কৃষক আবুল কালাম বলেন, উজানের পানিতে আমার ৫ বিঘা জমির ধান তলিয়ে গেছে। অনেক টাকা ক্ষতির সম্মুখীন হলাম।

jagonews24

কেশবপুর গ্রামের কৃষক কদ্দুস মিয়া বলেন, ধারদেনা করে এক বিঘা জমিতে আউশ ধান চাষ করি। কিন্তু পানি সব নিয়ে গেলো।

কৃষি অফিস সূত্র জানায়, এ বছর ৭৫০ হেক্টর জমিতে উপজেলায় আউশ ধানের আবাদ হয়। এর মধ্যে ৪৮০ হেক্টর আউশ ধান নষ্ট হয়ে গেছে। এরমধ্যে শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নে ২৭০ হেক্টর, শায়েস্তাগঞ্জে ৩০ হেক্টর, নূরপুরে ১১০ হেক্টর, ব্রাক্ষণডোরায় ৭০ হেক্টর জমির ধান পানিতে তলিয়ে যায়।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুকান্ত ধর বলেন, ৬৫ শতাংশ আউশ পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে উপজেলার কয়েক হাজার কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

কামরুজ্জামান আল রিয়াদ/আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]