দরিদ্র কলাবিক্রেতার ৮০০ টাকা নিয়ে পালালো প্রতারক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৯:০৭ পিএম, ১৮ জুলাই ২০২২

পাবনার চাটমোহরে ব্যাংক কর্মচারী পরিচয়ে একজন দরিদ্র কলাবিক্রেতার কাছ থেকে ৮০০ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে গেছেন এক প্রতারক।

সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুরে চাটমোহর পৌরসদরের নতুনবাজার খেয়াঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ওই বৃদ্ধের নাম আব্দুল লতিফ (৬২)। তিনি উপজেলার হরিপুর এলাকার বাসিন্দা। তবে প্রতারকের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

কলাবিক্রেতা আব্দুল লতিফ জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালে ভ্যানযোগে কলা বিক্রির উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে তিনি বের হন। চাটমোহর পৌর সদরের নতুন বাজার খেয়াঘাট এলাকায় কলা বিক্রির সময় বাজাজ মোটরসাইকেলে চড়ে এক ব্যক্তি তার কাছে আসেন। নিজেকে ব্যাংকের কর্মচারী পরিচয় দিয়ে জানান, ব্যাংকে বড় মিটিং আছে। তাদের অনেক কলা লাগবে। তিনি কলার দরদাম ঠিক করেন। অন্য কেনাকাটার জন্য আপাতত ৮০০ টাকা চান তার কাছে। কলা নিয়ে যাওয়ার সময় সব টাকা পরিশোধ করবেন বলে জানান।

কলাবিক্রেতা সরল বিশ্বাসে তাকে ৮০০ টাকা দেন। কলার ভ্যান নিয়ে তাকে সামনে আসতে বলে মোটরসাইকেলে চড়ে করে সামনে এগিয়ে যান ওই প্রতারক। পরে কলাবিক্রেতা কলার ভ্যান নিয়ে সামনে গিয়ে তাকে আর খুঁজে পাননি।

ওই ব্যক্তিকে খুঁজে না পেয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন বৃদ্ধ আব্দুল লতিফ। এ সময় আশপাশের দোকানদাররা এগিয়ে আসেন। তারা পাশের দোকানের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে প্রতারককে চিহ্নিত করেন। জিনসের প্যান্ট ও গেঞ্জি পরিহিত ওই ব্যক্তির মাথায় হেলমেট রয়েছে। তবে মাথায় হেলমেট থাকায় তাকে চেনা যায়নি।

স্থানীয় ব্যবসায়ী লিটন হোসেন বলেন, সিসিটিভি ফুটেজে আমরা প্রতারককে দেখেছি। চাটমোহরে এমন প্রতারণার ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। পুলিশ খোঁজ করলে এ প্রতারককে খুঁজে বের করা সম্ভব হতে পারে।

এ বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন বলেন, বিষয়টির খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]