পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে বিবাদ, দুই ভাইকে কুপিয়ে-পিটিয়ে জখম

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২২
আহত দেলোয়ার শিকদার

ফরিদপুরের সালথায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। আহত দুই ভাই হলেন- উপজেলার সিংহপ্রতাব গ্রামের মৃত শাহিদ শিকদারের ছেলে দেলোয়ার শিকদার (৫০) ও জিয়া শিকদার (৩৫)।

শুক্রবার (৫ জুলাই) রাত ৮টার দিকে উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের সিংহপ্রতাব গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

স্থানীয়রা জানান, পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে এই মারামারির ঘটনা ঘটে। জব্বার খালাসী দেলোয়ারের ছেলে সাকিলের কাছে পাঁচ হাজার টাকা পান। সেই টাকা কয়েকবার চাইলেও ফেরত দেননি তিনি। পরে বিষয়টি নিয়ে সালিশ হলে মাত্র এক হাজার টাকা ফেরত দেন সাকিল। বাকি টাকা দেওয়া নিয়ে গড়িমসি করছিলেন তিনি। শুক্রবার রাতে ওই টাকা চাওয়া নিয়ে জব্বার আর সাকিলের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে দুই পরিবারের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। এতে দেলোয়ার আর জিয়া আহত হন।

পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে বিবাদ, দুই ভাইকে কুপিয়ে জখমআহত জিয়া শিকদার

আহত দেলোয়ার শিকদার অভিযোগ করে জাগো নিউজকে বলেন, প্রতিপক্ষ জব্বার খালাসী, সুজাদ খালাসী ও কাসেম খালাসী শুক্রবার রাতে হঠাৎ এসে আমাকে পাঁচ হাজার টাকা দিতে বলে। ওই টাকা না দেওয়ায় তারা ও তাদের লোকজন আমাদের দুই ভাইয়ের ওপর হামলা চালায়। তারা আমাকে রামদা দিয়ে পায়ে কোপ দেয় ও আমার ভাই জিয়াকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেয়।

এদিকে, অভিযুক্ত জব্বার খালাসী, সুজাদ খালাসী ও কাসেম খালাসীর সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া সম্ভব হয়নি। এছাড়া ঘটনার পর থেকে তারা এলাকায়ও নেই বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শেখ সাদিক জাগো নিউজকে বলেন, মারামারির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পাশাপাশি আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এন কে বি নয়ন/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]