নদীভাঙন থেকে চর সিতাইঝাড় গ্রাম রক্ষায় মানববন্ধন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুড়িগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:২৮ পিএম, ১১ আগস্ট ২০২২

কুড়িগ্রামে সদর উপজেলার মোগলবাসা ইউনিয়নের চর সিতাইঝাড় গ্রামটি নদীভাঙন থেকে রক্ষা পেতে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপি জমা দেন তারা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন মোগলবাসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মো. এনামুল হকসহ নদীভাঙনের শিকার শতাধিক পরিবারের লোকজন।

মানববন্ধনে তারা বলেন, ‘আমরা চরবাসী বলে আমাদের থেকে সবাই মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন। সরকারের উন্নয়ন থেকে আমরা চরবাসী শুধু নদীভাঙনের কারণে বঞ্চিত হচ্ছি। আমাদের ঘরে বিদ্যুৎ আছে, স্বাস্থ্য সুবিধা পেতে কমিউনিটি ক্লিনিক পেয়েছি। স্কুল, মাদরাসা সবই আছে। অথচ নদীভাঙনের শিকার হয়ে আমরা প্রতি বছরই নিঃস্ব হয়ে পড়ছি।’

তারা বলেন, ‘নদীভাঙনের ফলে গত আট বছর ধরে মোগলবাসা ইউনিয়নটি মানচিত্র থেকে ছোট হয়ে যাচ্ছে। গত বন্যায় নদীভাঙন রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে কিছু জিও ব্যাগ ফেলানো হলেও কোনো পরিত্রাণ পাইনি। আমাদের দুঃখ দুঃখই রয়ে গেছে। জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অবিলম্বে নদীরক্ষা বাঁধসহ
আমরা টেকসই ব্যবস্থাপনা চাই।’

মোগলবাসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মো. এনামুল হক বলেন, ‘গত কয়েকদিনে সিতাইঝাড় গ্রামের ৫০টির বেশি পরিবার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। নিঃস্ব-অসহায় পরিবারগুলোর অনেকের মাথা গোঁজার ঠাঁই না থাকায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। গতবছর বন্যায় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদীগর্ভে চলে গেছে। ফলে এ অঞ্চলের শিশুরা শিক্ষা থেকে ঝরে পড়ছে। আমরা নদীভাঙন থেকে মুক্তি চাই।’

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, চর সিতাইঝাড় গ্রামটি নদীভাঙন থেকে রক্ষায় জিও ব্যাগ ফেলা হয়েছে। তীব্র স্রোতের কারণে ব্যাগের নিচ থেকে মাটি সরে যাওয়ায় ব্যাগগুলো আটকানো যাচ্ছিল না। ফলে নতুন করে ভাঙনের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।