যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
পুলিশ হেফাজতে আদালতে নেওয়া হয় আসামিকে

স্ত্রী হত্যার দায়ে মো. শাহজাহান প্রধান (৪৩) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চাঁদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত শাহজাহান হাজীগঞ্জ উপজেলার কালচোঁ ইউনিয়নের ভাটরা গ্রামের প্রধানিয়া বাড়ির মৃত আব্দুস ছাত্তারের ছেলে। হত্যার শিকার ফারহানা একই ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের পাটওয়ারী বাড়ির মো. আলী আকবর পাটওয়ারীর মেয়ে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০০৫ সালে ফারহানা ও শাহজাহানের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের সংসার জীবন ভালোই চলছিল। শাহজাহান সৌদি আরব যাওয়ার জন্য স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে ৩ লাখ টাকা যৌতুক এনে দেওয়ার জন্য চাপ দেন।

২০০৯ সালের ৭ জুন বিকেলে যৌতুক নিয়ে শাহজাহানের সঙ্গে ফারহানার যৌতুক নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতন ও তলপেটে লাথি মারেন শাহজাহান। ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

ওই ঘটনায় ফারহানার ভাই ফারুক আহম্মদ পাটওয়ারী বাদী হয়ে ছয়জনের বিরুদ্ধে হাজীগঞ্জ থানায় মামলা করেন। মামলা তদন্ত শেষে ২০১২ সালের ২৭ মার্চ শাহজাহানকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

মামলায় সরকার পক্ষের আইনজীবী স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. সাইয়্যেদুল ইসলাম বাবু বলেন, দীর্ঘ ১৪ বছর মামলাটি চলমান অবস্থায় আদালত ১০ জনের সাক্ষ্য নেন। সাক্ষী ও মামলার নথিপত্র পর্যালোচনা শেষে আসামির উপস্থিতিতে রায় দেন বিচারক।

নজরুল ইসলাম আতিক/এসজে/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।