ইয়াবা নিতে গিয়ে বাগবিতণ্ডা, যুবক খুন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০২:১৭ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০২২
ফাইল ছবি

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় ইয়াবা আনতে গিয়ে কারবারিদের মারধরে রশিদ সুমন (৩৪) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সময় জহিরুল ইসলাম (৩৫) নামের আরেক যুবক আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার হ্নীলার মরিচ্যাঘোনা পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমন লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ উপজেলার দত্তপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত হাফিজ উল্লাহর ছেলে এবং আহত জহিরুল একই উপজেলার হাসেমদি গ্রামের এজুমিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, লক্ষ্মীপুর থেকে বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) আসা সুমন ও জহির পর্যটক হিসেবে কক্সবাজারের একটি হোটেলে ওঠেন। ইয়াবা আনতে শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে টেকনাফের হ্নীলা স্টেশন এলাকায় যান তারা। স্থানীয় বাসিন্দা ইব্রাহিম ও রাসেল দুজনকে মরিচ্যাঘোনাস্থ নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর তাদের সঙ্গে ইয়াবার লেনদেনকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে লক্ষ্মীপুরের দুই যুবককে তারা পাহাড়ে নিয়ে বেধড়ক পেটায়। এতে সুমন মারা যান। জহিরকে অবস্থায় স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করেন।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল হালিম জাগো নিউজকে বলেন, খবরটি পেয়ে হ্নীলা মরিচ্যাঘোনা পাহাড়ি এলাকা থেকে একজনের মরদেহ ও অপরজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত যুবক টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, পর্যটন এলাকা হওয়ায় কক্সবাজারে আসা সবাইকে নজরদারিতে রাখা সম্ভব হয় না। সেই সুযোগটাই নিচ্ছে মাদক কারবারিরা। পর্যটক বেশে এসে মাদক নিয়ে অনেকে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন। আবার বনিবনা না হওয়া খুনও হচ্ছেন, এটা দুঃখজনক। এসব নিয়ন্ত্রণে সমাজ ও পরিবারের সবার উচিত শৃঙ্খলাবাহিনীকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করা।

সায়ীদ আলমগীর/এসজে/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।