গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা : গ্রামীণফোনের আড়াই লাখ টাকা জরিমানা


প্রকাশিত: ১২:৫০ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

ইন্টারনেট প্যাকেজের চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করছে বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন। রোববার এই অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাদের দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক প্রণব কুমার প্রামাণিক। তিনি জানান, ২০১৫ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর শিবলী সাদেক নামে গ্রামীণফোনের এক গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে অনুসন্ধান করে প্রতারণার প্রমাণ পাওয়া যায়।

সূত্র জানায়, শিবলী সাদেক নামে ওই গ্রাহকের কাছে ইন্টারনেট অফারের একটি এসএমএস আসে। অফারে এক জিবি (গিগাবাইট) ইন্টারনেটের সঙ্গে ২ জিবি ফ্রি দেয়ার কথা উল্লেখ করা হয়। এ প্যাকেজের মেয়াদকাল উল্লেখ করা হয় ২৮ দিন। কিন্তু শিবলী সাদেক যখন গ্রামীণফোনের ইন্টারনেট প্যাকেজটি গ্রহণ করে, তখন তাকে বলা হয় ফ্রি ২ জিবির মেয়াদ হবে মাত্র ৭ দিন। ব্যবহার করা যাবে রাত ২টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

গ্রাহকদের আকৃষ্ট করার জন্য চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে ভোক্তাদের সঙ্গে এ ধরনের প্রতারণা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের পরিপন্থী। প্রতারণা ও যথাযথ সেবা প্রদান না করার অভিযোগের প্রমাণ পাওয়ার ভিত্তিতে গ্রামীণফোনকে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৪৪ ও ৪৫ ধারা অনুযায়ী তাদের এ জরিমানা করেন অধিদফতরের উপ-পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ।

এ বিষয়ে গ্রামীণফোনের হেড অব এক্সটার্নাল কমিউনিকেশনস সৈয়দ তালাত কামালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, রায়টি খতিয়ে দেখছি এবং পর্যালোচনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করা সম্ভব নয়।

এসআই/জেএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]