ছয় মাসে বিকেবি’র ৪ এমডি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৫ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

মাত্র ছয় মাসের ব্যবধানে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে (বিকেবি) চারজন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগ দিয়েছে সরকার। আর গত ১৪ মাসে নিয়োগ পেয়েছেন পাঁচজন। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ এ নিয়োগ দিয়ে থাকে।

সর্বশেষ ১৩ ফেব্রুয়ারি অগ্রণী ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মো. আলী হোসেন প্রধানিয়াকে পদোন্নতি দিয়ে বিকেবির এমডি পদে নিয়োগ দেয়া হয়। আর এই নিয়োগের মাধ্যমে বিকেবি বহু বছর পর লম্বা সময়ের জন্য একজন এমডি পেলেন। কারণ তার চাকরির মেয়াদ শেষ হবে ২০২১ সালের জুলাই মাসে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের আগস্টে ২০ দিনের জন্য এমডির দায়িত্ব পালন করেন ব্যাংকের ডিএমডি মাহ্তাব জাবীন। এরপর চার মাসের জন্য এমডি হয়ে আসেন মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, যার মেয়াদ শেষ হয় ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি এমডি হয়ে আসেন মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, দেড় মাসের মাথায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি যিনি অবসরোত্তর ছুটিতে যান। এরপরই নিয়োগ দেয়া হয় বর্তমান এমডি আলী হোসেন প্রধানিয়াকে।

বিকেবি কার্যালয়ে টাঙানো সময়কালসহ এমডিদের তালিকা বিশ্লেষণে দেখা যায়, শুরু থেকে আলী হোসেন প্রধানিয়া পর্যন্ত ৩৬ জনকে বিকেবি’র এমডি নিয়োগ দেয়া হয়।

আওয়ামী লীগ সরকারের দুই মেয়াদে (২০০৯ থেকে বর্তমান পর্যন্ত) বিকেবি এমডি পায় ১০ জনকে। সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৮ সালের ২৮ জানুয়ারি নিয়োগ পাওয়া মোহাম্মদ মোখতার হোসেন এমডি ছিলেন ২০১২ সালের ৪ জুলাই পর্যন্ত।

এরপর দুই বছরেরও বেশি সময় এমডি ছিলেন মো. আবদুস সালাম এবং তার পরের দুই বছর এমডি ছিলেন এম এ ইউসুফ। এম এ ইউসুফের পর এক মাসের জন্য অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন ব্যাংকের ডিএমডি মো. আবুল হোসেন।
এরপর নয় মাসের জন্য এমডি হন মুহম্মদ আউয়াল খান, যাকে সরিয়ে সরকার বেসিক ব্যাংকের এমডি করেন গত বছরের আগস্টে।

এ বিষয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. ইউনুসুর রহমান বলেন, ‘ব্যাংক তো খালি রাখা যায় না। আর, যারা এমডি পদের যোগ্য হবেন, জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নিয়োগ তাদের দিতেই হবে।’

তবে এবারের এমডি ভালো কিছু করার সময় পাবেন বলে তিনি আশাবাদী।

এমইউএইচ/এমবিআর/আইআই