অর্থনীতিতে এসএমই খাতের গুরুত্ব বাড়ছে

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৮ পিএম, ০৩ অক্টোবর ২০১৮

‘অর্থনীতিতে এসএমই খাতের অবদান দু’চার কথায় বলে শেষ করা যাবে না। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে মূলধন যোগানের মাধ্যমে উদ্যোক্তা তৈরি ও বেকারত্ব দূরীকরণে ভূমিকা রাখছে এসএমই খাত। এই খাতে জামানতবিহীন ঋণ প্রদান করছে দেশের অর্ধশতাধিক ব্যাংক ও নন-ব্যাংক অার্থিক প্রতিষ্ঠান। সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করে উদ্যোক্তা তৈরির পাশাপাশি ঋণ বিতরণ ও অাদায়ের সাথেও জড়িতদের কর্ম সংস্থানের সুযোগ তৈরি হয়েছে।’ কথাগুলো বলছিলেন লংকা বাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের এসএমই বিভাগের প্রধান মো. কামরুজ্জামান খান। সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

কামরুজ্জামান খান এসএমই বিভাগে কর্মকর্তা হিসেবে ব্র্যাক ব্যাংকে ২০০৩ সালে কর্ম জীবন শুরু করেন। কর্মজীবনে ব্র্যাক ব্যাংক লিঃ এ জোনাল ম্যনেজার, টেরিটরি ম্যানেজার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ২০১৩ সালের শেষের দিকে লংকা বাংলা ফাইন্যান্সে যোগদান করেন। এসএমই বিভাগের প্রধান ও বর্তমানে সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে লংকা বাংলা ফাইন্যান্সে কর্মরত অাছেন। এসএমই ব্যাংকিং বিষয়ে দেশে-বিদেশে বহু প্রশিক্ষণও নিয়েছেন। সহজ শর্তে নামেমাত্র সুদে নারীদের জামানতবিহীন ঋণ প্রদান করে নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে এবং কৃষি ও প্রাণি সম্পদ পরিপালনে ও সহজশর্তে ঋণ বিতরণের মাধ্যমেও নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করেছে এমএমই খাত বলেও জানান তিনি।

প্রত্যেক ব্যাংক ও নন ব্যাংকিং অার্থিক প্রতিষ্ঠানে নারীদের সেবায় অালাদা নারী উদ্যোক্তা ইউনিট রয়েছে। এ পেশায় কর্মসংস্থান ও বৃদ্ধি পাচ্ছে। লংকা বাংলা ফাইন্যান্সে যোগদানের সময় এসএমই বিভাগের পোর্টফোলিওর (প্রায় ২৮ কোটি) বেশিরভাগই শ্রেণিকৃত লোন ছিল বলেও জানান তিনি। তবে বর্তমানে প্রায় ১ হাজার ৫ শত কোটি টাকার পোর্টফোলিও দাঁড় করিয়েছেন তিনি। বর্তমানে লংকা বাংলা এসএমই ডিভিশনে দুই শতাধিক রিলেশনশিপ অফিসার কর্মরত। এসএমই ডিভিশনে অনভিজ্ঞদের নিয়োগ দিয়ে এ খাতে দক্ষ জনবল হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে।

ব্যাংকিং-নন ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রিতে এসএমই ডিভিশনের উন্নতি জ্যামিতিক হারে বাড়বে বলেও মনে করেন তিনি। জনবহুল এ দেশে ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতের উদ্যোক্ততা অনেক বেশি। ব্যবসায়ী হওয়ার জন্য রয়েছে হাজারো সেক্টর। উদ্যোক্তাদের প্রয়োজন অার্থিক সহায়তা এবং ক্লোজ মনিটরিং। এসএমই খাতের অফিসাররা উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করে থাকেন বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বরিশালের সদর উপজেলার সাহেবের হাটে বেড়ে ওঠা কামরুজ্জামান খান বরিশাল বিএম কলেজে থেকে অ্যাকাউন্টিং এ স্নাতোকোত্তর ডিগ্রি শেষ করেই ব্র্যাক ব্যাংকের এসএমই বিভাগে অফিসার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এছাড়াও তিনি স্টেট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ থেকে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। ব্র্যাক ব্যাংকের এসএমই ডিভিশনের অগ্রযাত্রায় যাদের নাম ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রিতে সর্বমহলে পরিচিত তাদের মধ্যে কামরুজ্জামান খানও একজন।

এসএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]