অভিযান শেষ হয়, থেকে যায় অবৈধ দোকান-হকাররা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৯ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৫তম দিন শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মেলায় অবৈধ স্থাপনা, দোকান ও হকারদের উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে আয়োজক সংস্থা রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। অভিযানে ১০টিরও বেশি অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ ও তাদের মালামাল জব্দ করা হয়।

ইপিবির উচ্ছেদ অভিযান শেষ হওয়ার পরপরই বাণিজ্য মেলা ঘুরে দেখা যায়, হকার ও অবৈধ দোকানের উপস্থিতি আগের মতই। এটা শুধু আজ নয়, ইপিবির মেলায় প্রতিদিন সকাল-বিকেল নিয়ম করে দুইবার উচ্ছেদ অভিযান চালালেও অবৈধ দোকান ও হকারদের উপস্থিতি শেষ হয় না।

শনিবার দুপুর ২টার পর মেলায় ঘুরে দেখা যায়, হকার ও অবৈধ দোকান তাদের মালামাল বিক্রি করেছেন। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ তাদের ব্যর্থতা স্বীকার করে বলছে, এত বড় আয়োজনে কিছু কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থেকেই যায়।

Fair-2

মেলায় অবৈধ স্থাপনা ও দোকান উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনাকারী (ইপিবি) উপ-পরিচালক মাহমুদুল হাসান জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করি অবৈধ দোকানপাটন ও হকারদের উচ্ছেদ করতে। তবে এত বড় আয়োজন, কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকেই। তারপরও আমরা চেষ্টা করি উচ্ছেদ করতে।’

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে অভিযান চালান মাহমুদুল হাসন। অভিযানের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রতিদিন সকাল-বিকেল নিয়মিত অভিযান চালাই। এরই অংশ হিসেবে আজ (শনিবার) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মেলায় অনুমোদনের বাইরে যেসব ট্রি-স্টল, আইসক্রিম, কফিশপ, হকার ছিল তাদের মালামাল জব্দ করা হয়েছে। এতে আজ (শনিবার) ১০টির বেশি অবৈধ স্টলের মালামাল জব্দ করা হয়।’

মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও স্টলের মোট সংখ্যা ৬০৫টি। এর মধ্যে প্যাভিলিয়ন ১১০টি, মিনি-প্যাভিলিয়ন ৮৩টি ও রেস্তোরাঁসহ অন্যান্য স্টল রয়েছে ৪১২টি। বাংলাদেশ ছাড়াও ২৫টি দেশের ৫২ প্রতিষ্ঠান এবারের মেলায় অংশ নিয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে ৮ দিন পরে গত ৯ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শেষ হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি।

পিডি/আরএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :