পুঁজিবাজারে প্রকৌশল খাতের দাপট অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০১৯

লেনদেন খরার মাধ্যমে আরেকটি সপ্তাহ পার করেছে শেয়ারবাজার। তবে লেনদেন খরার মধ্যে কিছুটা হলেও দাপট দেখিয়েছে প্রকৌশল খাতের কোম্পানিগুলো। এ নিয়ে টানা দুই সপ্তাহ লেনদেনে প্রকৌশল খাতের দাপট অব্যাহত থাকলো।

মূলত প্রকৌশল খাতের কোম্পানিগুলোর ওপর ভর করেই গত সপ্তাহে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গড় লেনদেন ৩০০ কোটি টাকার ঘরে থাকতে পেরেছে। এরপরও আগের সপ্তাহের তুলনায় লেনদেন কমেছে।

সপ্তাহটিতে প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৩০৮ কোটি ১৫ লাখ টাকা, যা আগের সপ্তাহের তুলনায় ৭ দশমিক ১৪ শতাংশ কম। লেনদেন কমার পাশাপাশি সপ্তাজুড়েই কমেছে সবকটি মূল্যসূচক।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহজুড়ে শীর্ষে থাকা প্রকৌশল খাতে গড়ে প্রতিদিন ৩৮ কোটি ৮০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ফার্মাসিউটিক্যালস খাতের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৩২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। ২৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বস্ত্র খাত।

লেনদেন হওয়া অন্য খাতগুলোর মধ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ২৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা, বীমা খাতে ২৪ কোটি ৫৭ লাখ, ব্যাংকিং খাতের ২৪ কোটি ৪৪ লাখ, চামড়া খাতে ২৪ কোটি ১৬ লাখ, টেলিকমিউনিকেশন খাতে ২১ কোটি ৬০ লাখ, সিরামিক খাতে ২০ কোটি ৫ লাখ, বিবিধ খাতে ১২ কোটি ৬৭ লাখ এবং খাদ্য খাতে ১১ কোটি পাঁচ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

বাংকিং খাতগুলোর এককভাবে লেনদেনের পরিমাণ ১০ কোটি টাকার নিচে। এর মধ্যে- আর্থিক খাতে সাত কোটি ৬০ লাখ টাকা, তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে চার কোটি ৮৯ লাখ, সিমেন্ট খাতে তিন কোটি ৫৩ লাখ, সেবা ও আবাসন খাতে এক কোটি ৮১ লাখ, পাট খাতে এক কোটি ৫৯ লাখ, ভ্রমণ ও অবকাশ খাতে এক কোটি ৪৯ লাখ, পেপার অ্যান্ড প্রিন্টিং খাতে এক কোটি ৪২ লাখ এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাতে এক কোটি ২২ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

এমএএস/এএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :