আবারও জমি কেনার ঘোষণা দিল অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪৭ এএম, ২৩ মে ২০১৯

দেড় মাসের ব্যবধানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালনা পর্ষদ আবারও নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে জমি কেনার ঘোষণা দিয়েছে। কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (২৩ মে) প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে বিনিয়োগকারীদের এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত এপ্রিলের শুরুতে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে জমি কেনার ঘোষণা দেয় কোম্পানিটি। এদিকে দেড় মাসের ব্যবধানে আবারও জমি কেনার ঘোষণা দিলেও অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ কী উদ্দেশ্যে জমি কিনেছে এবং জমিতে কী করা হবে -সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানায়নি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ।

কোম্পানিটির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডিএসই জানিয়েছে, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালনা পর্ষদ নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে ১২ দশমিক ৮৩ ডেসিমেল জমি কিনবে। এর জন্য খরচ হবে ৪২ লাখ ৯৮ হাজার টাকা।

কোম্পানিটি আরও জানিয়েছে, ১২ দশমিক ৮৩ ডেসিমেল জমির মধ্যে ৮ ডেসিমেল ২৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা দিয়ে কেনা হবে। বাকি ৪ দশমিক ৮৩ ডেসিমেল জমি কেনা হবে ১৬ লাখ ১৮ হাজার টাকা দিয়ে। এছাড়া জমি রেজিস্ট্রিসহ বিবিধ খাতে খরচ হবে ৫ লাখ ৫৯ হাজার টাকা।

গত ১ এপ্রিল ডিএসইর মধ্যে কোম্পানিটি জমি কেনার ঘোষণা দেয়। সে সময় ডিএসই জানায়, কোম্পানিটি নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে ৪১৪ দশমিক ৩২ ডেসিমেল জমি কিনবে। এর জন্য খরচ হবে ১৯ কোটি ৩৩ লাখ ৪৯ হাজার ৩৩৪ টাকা।

ডিএসই তথ্যানুযায়ী, কোম্পানিটির শেয়ারের ২৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে। বাকি শেয়ারের মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে আছে ১৬ দশমিক ১০ শতাংশ শেয়ার। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৬ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং বিদেশিদের কাছে ৩৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ শেয়ার আছে।

পুঁজিবাজারে ‘এ’ গ্রুপের কোম্পানিটি নিয়মিত শেয়ারহোল্ডারদের মোটা অংকের লভ্যাংশ দিচ্ছে। ২০১৮ সালে ৪৮ শতাংশ নগদ, ২০১৭ সালে ৪৫ শতাংশ নগদ, ২০১৬ সালে ৪০ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

চলতি হিসাব বছরের (২০১৮-১৯) প্রথম ৯ মাসে বা ২০১৮ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটি ব্যবসা করে মুনাফা করেছে ১৩৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এতে শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৬ টাকা ৯৭ পয়সা।

এমএএস/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :