মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করবে খেলাধুলা : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৭ পিএম, ২৩ মে ২০১৮

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, খেলাধুলা, শরীরচর্চা জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই লেখাপড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন।

শিক্ষামন্ত্রী বুধবার ঢাকায় জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (নায়েম) অডিটোরিয়ামে ৪৬ ও ৪৭তম জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহকে ক্রীড়া সামগ্রী, সনদ ও চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া সমিতি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শারীরিক সুস্থতা ও মানসিক বিকাশের জন্য খেলাধুলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাঠ্যপুস্তকের শিক্ষা এবং পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলায় অংশ নিতে হবে। সার্বিক বিকাশের জন্য সংস্কৃতিচর্চা, খেলাধুলা ইত্যাদি প্রয়োজন। মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে শিক্ষার্থীদের বাঁচাতে এসব কর্মকাণ্ড বাড়াতে হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষক-অভিভাবকদেরও দায়িত্ব রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্য নতুন প্রজন্মকে আধুনিক, উন্নত বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে প্রস্তুত করা। এজন্য তাদেরকে সুস্বাস্থ্য ও ভালো মনের অধিকারী হতে হবে। খেলাধুলা, সংস্কৃতিচর্চা ছাড়া শারীরিক ও মানসিক বিকাশ হয় না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর মো. মাহাবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ঢাকার চেয়ারম্যান প্রফেসর মু. জিয়াউল হক এবং জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (নায়েম)-এর মহাপরিচালক প্রফেসর সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে জাতীয় পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, শারীরিক শিক্ষার শিক্ষক এবং দলীয় খেলার অধিনায়করা উপস্থিত ছিলেন। শিক্ষামন্ত্রী চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিগতভাবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করেন।

সার্বিক বিবেচনায় ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অর্জনকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে যথাক্রমে ৫০ হাজার, ৪০ হাজার ও ৩০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়। প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অর্জনকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ টাকা এবং ২য় স্থান অর্জনকারী প্রতিষ্ঠানকে ৭০ হাজার টাকা করে পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা দেন শিক্ষামন্ত্রী।

এমএইচএম/এমআরএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :