‘কঙ্গনাকে জুতা মেরেছিলেন মহেশ ভাট’

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৪২ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৯

বলিউডে আলোচিত-সমালোচিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। কখনও প্রতিভার জন্য, কখনওবা ঝগড়া-ঝাটির জন্য। আর এবার সেই জায়গা নিলেন তার বোন রঙ্গোলি চান্দেল। কয়েকদিন আগে রঙ্গোলি একাধিক টুইট করেন। আর সেইসব টুইটে...।

তিনি জানান, ওহ লমহে ছবির শ্যুটিং চলাকালীন কঙ্গনা মাত্র ১৯ বছরের ছিলেন। এই ছবির স্ক্রিনিংয়ের সময় কঙ্গনার দিকে জুতা ছুঁড়ে মেরেছিলেন মহেশ ভাট। কঙ্গনা তার নিজের ছবি দেখুক, এই অনুমতি তিনি দেননি। কঙ্গনা সারারাত কেঁদেছিলেন বলে জানান রঙ্গোলি।

আলিয়া ভাটের উদ্দেশ্যে কঙ্গনা একটি মন্তব্য করার পর সোনি রাজদান কঙ্গনাকে টার্গেট করেন। আর এবার মহেশ ভাট প্রসঙ্গে মুখ খুললেন কঙ্গনার বোন।

উল্লেখ্য, আলিয়ার মা সোনি বলেন, মহেশ ভাটই প্রথম কঙ্গনা বড় ব্রেক দিয়েছেন। আর এই কঙ্গনা তার স্ত্রী এবং মেয়েকে টার্গেট করছে। এর প্রত্যুত্তরে রঙ্গোলি বলেন, ‘ডিয়ার সোনিজি মহশে ভাট কখনোই কঙ্গনাকে ব্রেক দেননি। অনুরাগ বাসু এবং মহেশ ভাট ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর হিসেবে তার ভাইয়ের প্রোডাকশনে কাজ করছিলেন।

প্রথম অনুরাগ বাসুর গ্যাংস্টারে অভিনয় করেছিলেন কঙ্গনা, আর তারপর উও লমহে ছবিতে অভিনয় করেন। মনে করা হয়, ২০০৬ সালে মুক্তি পাওয়া উও লমহে ছবিটি মহেশ ভাট এবং প্রয়াত পরভিন ববির গোপন প্রেমেরই রুপালি রূপ। এখানে মুখ্য ভূমিকায় কঙ্গনা এবং সাইনি আহুজা অভিনয় করেছিলেন। ছবির পরিচালক ছিলেন মোহিত সুরি।

এমআরএম/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]