প্রেম করেছি, সময় হলেই সংসার : নায়লা নাঈম

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১২ এএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

ইতোমধ্যেই মন দেয়ানেয়া করে ফেলেছেন এই সময়ের জনপ্রিয় মডেল অভিনেত্রী নায়লা নাঈম। আর সময় হলেই সংসার গোছাবেন এই মডেল।

জাগোনিউজকে দেওয়া এক আলাপচারিতায় এভাবেই নিজের মন বিনিময়ের কথা জানিয়েছেন নায়লা নাঈম। বললেন, অবশ্যই প্রেম করেছি। আর সময় হলেই সংসার শুরুর ব্যাপারে চিন্তা করবো।

এই সময়ের আলোচিত মডেল অভিনেত্রী নায়লা নাঈম। চিকিৎসা বিজ্ঞানে পড়াশোনা করেও অভিনয় আর মডেলিং এ দারুণ ঝোক তার। সফলতাও পাচ্ছেন। সম্প্রতি জাগোনিউজের মুখোমুখি হয়েছিলেন নায়লা নাঈম। আলাপচারিতায় উঠে এসেছে নায়লা নাঈমের নানা অজানা কথা। জাগোনিউজের পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হল:

জাগোনিউজ: ক্যারিয়ারের শুরুর কথা জানতে চাই?
নায়লা নাঈম: মডেলিং এ মেধা ও নিজের সৌন্দর্য্য দিয়ে ভালো করার সুযোগ আছে। প্রথম দিকে মডেলিং করাটা শখের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও আস্তে আস্তে যখন সাফল্য আসতে শুরু করলো, আমার কাজের প্রশংসা পেতে থাকলাম। নতুন নতুন সৃজনশীল, গঠনমূলক ও ভালো কাজের স্বীকৃতি আসতে শুরু করলো, তখন থেকে আমি মডেলিংকে আরো প্রাধান্য দিয়ে পেশা হিসাবে কাজ করা শুরু করলাম। আমার ক্যামেরায় তোলা কিছু ছবি নতুন মডেলদের নিয়ে কাজ করে এরকম একটি মডেলিং এজেন্সির কাছে জমা দিই যারা নতুন মডেলদেরকে গ্রুমিং করে। সেখানে নতুনদের মধ্যে আমি বেশ ভালো কাজ করতে থাকি। পরবর্তীতে ভিট, ইউ-গট-দ্য লুক প্রতিযোগিতায় আমি শীর্ষ দশের মধ্যে থাকি। এরপর আমাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক ভালো কাজের মাধ্যমে মডেলিং-এ আমি আমার স্থান করে নিই। এরপর থেকে নাটকে ও সিনেমায় কাজ করার প্রস্তাব পাচ্ছি।

জাগোনিউজ: আপনি একজন চিকিৎসা বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী হয়েও মডেলিং এ আগ্রহ পেলেন কিভাবে?
নায়লা নাঈম: ছোটবেলা থেকেই আমার মিডিয়াতে কাজ করার ইচ্ছে ছিল। একসময়ের বিখ্যাত মডেলদের দেখে এই ইচ্ছেটা আরো প্রবল হয়। ডেন্টাল কলেজে পড়ার সময় মনে হয় পড়াশোনার পাশাপাশি কিছু করার সুযোগ আছে, তখন থেকেই মডেলিং করার কথা ভাবতে শুরু করি।

জাগোনিউজ: পেশা হিসেবে অভিনয় আর মডেলিং কি চুড়ান্ত ভাবে বেছে নিচ্ছেন?
নায়লা নাঈম: ডেন্টিস্ট্রি এবং মডেলিং প্রফেশনে আমি ভালোভাবে প্রতিষ্ঠিত। সুতরাং, দুইটা পেশায় চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে আছে। আর, ভালো চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পেলে ডেন্টিস্ট্রি এবং মডেলিং এর পাশাপাশি অভিনয়ের ইচ্ছেও আছে।

জাগোনিউজ: পড়াশোনার বিষয়ে দর্শকদের জানাবেন?
নায়লা নাঈম: বাবার চাকরির সুবাদে আমার শৈশব কেটেছে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায়। ঢাকার একটি বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ থেকে স্নাতক শেষ করে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাবলিক হেলথ বিষয়ে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছি।

জাগোনিউজ: মডেল ও অভিনেত্রীরা প্রেম নিয়ে লুকোচুরি করেন। আপনি কি একই পথে চলবেন?
নায়লা নাঈম: প্রেম করছি কিনা, অবশ্যই প্রেম করেছি। তবে এর বেশি কিছু জানাতে চাই না।

জাগোনিউজ: রাত্রীর যাত্রীর আইটেম গান করলেন। আইটেম গান করতে কেমন লেগেছে?
নায়লা নাঈম: রাত্রীর যাত্রীর ফটোসেশন হয়েছে। ফটোসেশনের অভিজ্ঞতা এক কথায় অসাধারণ ছিল। আইটেম গানটির শুটিং এখনো বাকি আছে।

জাগোনিউজ: আপনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ তৎপর। ব্যস্ততার মাধ্যমে কিভাবে এর জন্য সময় বের করেন?
নায়লা নাঈম: আসলে আমি বিশ্বাস করি, ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। কাজের ব্যস্ততার মাঝেও তাই আমি ফেসবুকে আমার অফিসিয়াল পেজের মাধ্যমে ভক্ত, শুভানুধ্যায়ী এবং সহকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করি।

জাগোনিউজ: অনেকে আপনাকে বাংলাদেশের সানি লিওন বলে থাকেন। কি মনে করেন?
নায়লা নাঈম: হিন্দি ছবির অভিনেত্রী এবং নায়িকা সানি লিওনের সাবলীল অভিনয় ও নাচের অসাধারণ পারফর্মেন্সের জন্য আমিও তাকে ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ করি। কেউ যদি সানি লিওনের উপস্থাপনা ও মিডিয়া পারফর্মেন্সের সাথে আমার মিল খুঁজে পাই সেটা তার একান্ত ব্যাপার বলে আমি মনে করি।

জাগোনিউজ: আপনার উপস্থাপনা নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনা দুটোই আছে। আপনি সমালোচনাকে কিভাবে দেখেন?
নায়লা নাঈম: আলোচনা সমালোচনা ভক্তদের একান্ত ব্যক্তিগত বলে মনে করি আমি।

জাগোনিউজ : ৫ বছর পর নিজেকে কোথায় দেখতে চান?
নায়লা নাঈম: আমি ৫ বছর পর নিজেকে সফল তারকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। আমি পেশায় একজন ডেন্টাল সার্জন। আমার নিজের চেম্বার আছে। সেখানে আমি সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন সময় দেই। অভিনয়ের পাশাপাশি এই পেশায়ও কাজ চালিয়ে যেতে চাই আমি।

জাগোনিউজ: সামাজিক কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িত হবার আগ্রহ আছে কিনা?
নায়লা নাঈম: আমাদের দেশে পথশিশুদের জন্য কোনো নিরাপদ আশ্রয়শ্রম নেই। ভবিষ্যতে পথশিশুদের জন্য একটা আশ্রয়শ্রম করার ইচ্ছে আছে। আপাতত এ লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি।

জাগোনিউজ: পশুর প্রতি একটি বিশেষ আগ্রহ আছে। এটি কিভাবে জন্মলো?
নায়লা নাঈম: আসলে ছোটবেলা থেকেই আমার পশুপাখির প্রতি আলাদা আগ্রহ ছিল। তখন থেকেই, পশুপাখিদের প্রতি আমার আলাদা মমতা কাজ করে। কোনো বিপদাপন্ন পশুপাখি দেখলে আমি সবকিছু বাদ দিয়ে সেটাকে বিপদ থেকে উদ্ধার করতে চেষ্টা করি।

জাগোনিউজ: নিজের সংসার নিয়ে কি ভাবছেন?
নায়লা নাঈম: সময় হলেই এব্যাপারে চিন্তা করবো।

জাগোনিউজ: ভক্তদের কাছে প্রত্যাশা?
নায়লা নাঈম: আশা করি, ভক্তরা অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও আমার সাথে থাকবেন এবং তাদের আকুণ্ঠ সমর্থন আমাকে সামনের দিনগুলিতে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা দিবে।

এসএ/এমআর/এআরএস/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :