মেয়েকে নিয়ে রায়ের ব্যাপারে কিছুই জানেন না বাঁধনের স্বামী

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৫ পিএম, ৩০ এপ্রিল ২০১৮

মেয়ে কার কাছে থাকবে এই প্রশ্নের জটিলতা নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। গেল বছরের ৩ আগস্ট মামলাটি দায়ের করেছিলেন বাঁধন নিজেই। অবশেষে সেই মামলার রায় হলো আজ সোমবার (৩০ এপ্রিল)।

রায়ে আদালত বাঁধনকে মেয়ে সায়রার পূর্ণ অভিভাকত্ব দিয়েছেন। রায়ে বলা হয়েছে, মায়ের জিম্মাতেই থাকবে সায়রা। বাবা মাসে কেবল দুই দিন মায়ের বাড়িতে গিয়ে মায়ের উপস্থিতিতে মেয়েকে দেখে আসবেন। কিন্তু কন্যার সর্বোত্তম মঙ্গলের জন্য মায়ের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে। বাঁধনের ভাষায়, ‘আদালত সাধারণ ‘কাস্টডি’ নয়, বরং সম্পূর্ণ ‘গার্ডিয়ানশিপ’ আমাকে দিয়েছেন।’

এদিকে এই রায়ের ব্যাপারে কিছুই জানেন না বাঁধনের প্রাক্তন স্বামী মাশরুর সিদ্দিকী। তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘আজ মামলার রায় হবে সেটিই জানতাম না। আমার উকিলও কিছু বলেনি আমাকে। হয়তো তিনিও জানেন না। তাই উকিলের সঙ্গে কোনো পরামর্শ না করে আমি এই রায় নিয়ে কিছুই বলতে পারছি না।’

তিনি আরও বলেন, ‘তবে বাবা হিসেবে মেয়েকে দূরে রেখে বেঁচে থাকাটা অনেক বেশি কষ্টের। বাবা হিসেবে আমি মেয়ের মঙ্গল চাই, ভালো চাই সবসময়। বাঁধনের সঙ্গে সম্পর্কের শুরু থেকেই আমি ভুলের মাশুল দিয়ে চলেছি।’

প্রসঙ্গত, পূর্ব পরিচিতির জের ধরে ২০১০ সালে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন অভিনেত্রী বাঁধন ও মাশরুর সিদ্দিকী। কিন্তু দাম্পত্য প্রতিকূলতার মুখে আনুষ্ঠানিকভাবেই ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর ডিভোর্স হয় তাদের। দীর্ঘদিন গোপন থাকার পর সেই খবর প্রকাশ্যে আসে গেল বছরের ২১ সেপ্টেম্বর।

এলএ/আরআইপি

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :