আব্বাসের সাফল্যে সাহসী নিরব

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৩ এএম, ০৪ আগস্ট ২০১৯

অনেক প্রতীক্ষার পর গেল ৫ জুলাই মুক্তি পায় সাইফ চন্দন পরিচালিত সিনেমা ‘আব্বাস’। যে ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করে আলোচনায় এসেছেন চিত্রনায়ক নিরব। ছবিটি দিয়ে দর্শকের মনে দাগ কেটেছেন তিনি।

‘আব্বাস’ মুক্তির একমাস পার হওয়ার আগেই এর নির্মাতা, নায়ক ও কলাকুশলীরা জানালেন, ‘ব্যবসায়িক সাফল্য পেয়েছে আব্বাস।’ বিষয়টিকে ঢাকাই সিনেমার নানা সংকটের ভিড়ে আনন্দের বলেই দাবি করছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা।

সেই আনন্দকে উদযাপনও করা হয়ে গেল। গত ১ আগস্ট সংবাদকর্মী ও সিনেমা সংশ্লিষ্ট মানুষদের নিয়ে ‘সাকসেস পার্টি’ দিলেন আব্বাসের নির্মাতা সাইফ চন্দন ও নায়ক নিরব।

আব্বাসকে অভিনন্দন জানাতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, কণ্ঠশিল্পী ইমরান, সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূন, চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির নব নির্বাচিত কমিটি সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবুসহ আরও অনেকেই।

শনিবার (৩ আগস্ট) জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপচারিতায় নিরব বলেন, ‘আব্বাসের সাফল্য প্রেরণা হয়ে থাকবে আমার ক্যারিয়ারে। এই মুহূর্তে এমন একটি সিনেমা দরকার ছিল। আমি খুব সাহস পাচ্ছি সামনে চলার। আজ এই ছবিটি নিয়ে প্রযোজক তৃপ্ত। এ সাফল্যের সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব আমি দর্শকদের দেবো। তারা ভালোবেসেছেন বলেই আমাদের প্রচেষ্টা সফল হয়েছে।’

southeast

নিরব আরও বলেন, ‘ছবিটির গল্প মৌলিক ও ইউনিক। এর প্রতিটি চরিত্রের প্রতিই পরিচালক সাঈফ চন্দন যত্নবান ছিলেন। আমরা সবাই একটা ভাল টিম হয়ে কাজ করেছি। তারই প্রতিদান পেলাম। এই সাফল্যটা ধরে রাখতে চাই। আগামীতে যে সিনেমাগুলো করবো সেগুলোর মান নিয়ে সতর্ক থাকবো।’

ছবির পরিচালক সাইফ চন্দন বলেন, ‘আব্বাস অনেক বেশি বাজেটের ছবি নয়। এর পরিকল্পনাটা ভাল ছিলো। কম টাকায় ভালো ছবি নির্মাণ করা যায়, সেটির প্রমাণ ‘আব্বাস’। এর সঙ্গে বিভিন্ন স্পন্সর কোম্পানি পাশে দাঁড়িয়েছে, ডিজিটাল রাইটস, হলের ব্যবসা সবকিছু মিলিয়ে আব্বাস ব্যবসায়িকভাবে সফল সিনেমা। যারা শুরু থেকে পাশে ছিলেন তাদের কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই।’

আব্বাসের সাফল্যের ধারাবাহিকতায় এর সিক্যুয়েল আসবে কি না, সেই প্রশ্নের জবাবে চন্দন বলেন, ‘এটা আপাতত চমক হিসেবে থাক। অনেকেই অনুরোধ করছেন যেন আব্বাস টু নির্মাণ করি। প্ল্যান আছে আমাদেরও। তবে এখনই কিছু বলা যাবে না।’

এলএ/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]