মিশা-জায়েদের পদত্যাগ চান ভোটাধিকার হারানো চলচ্চিত্র শিল্পীরা

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৪ পিএম, ১৯ জুলাই ২০২০

‘অনেকদিন ধরেই আমরা সিনেমার সঙ্গে জড়িত। শিল্পী সমিতির একজন সম্মানিত সদস্য হিসেবে অন্তর্ভূক্ত ছিলাম। ভোট দিয়েছি, যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করেছি। কিন্তু মিশা-জায়েদ প্যানেল ক্ষমতায় এসে আমাদের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। কোন সাহসে তারা এমনটি করলো তার জবাব চাই। আমরা শিল্পী সমিতি থেকে মিশা ও জায়েদ খানের পদত্যাগ চাই’- এভাবেই মানববন্ধনে এসে নিজের মনের কথা সবাইকে জানাচ্ছিলেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী সাদিয়া মির্জা।

আজ ১৯ জুলাই বেলা সাড়ে ১১টায় বিএফডিসির প্রধান ফটকের সামনে মিশা-জায়েদের পদত্যাগ চেয়ে মানববন্ধন করেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থেকে ভোটাধিকার হারানো শিল্পীরা। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৮৪ জন অভিনয় শিল্পীর ভোটাধিকার অন্যায়ভাবে কেড়ে নিয়েছেন সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান- এ অভিযোগেই তাদের পদত্যাগ চেয়ে রাস্তায় নেমেছেন তারা।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন সাদিয়া মির্জাসহ আরও অনেকেই। ছিলেন ফিরোজ সাঁই, শান, সাজিদ প্রিন্স, রমিজউদ্দিন, হিরো আলমসহ আরও অনেকে।

২০১৭-১৮ সালের শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে সমিতির মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৬২৪ জন। মিশা সওদাগর-জায়েদ খান প্যানেল বিজয়ী হওয়ার পর এ তালিকা থেকে ১৮৪ জন ভোটারের ভোটাধিকার বাতিল করে কেবল সহযোগী সদস্য করা হয়েছে। নতুন করে ২০ জন শিল্পীকে নতুন ভোটার করা হয়। এর জেরে দীর্ঘদিন ধরেই মিশা-জায়েদ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে আন্দোলন করে আসছেন ভুক্তভোগী শিল্পীরা।

অবশেষে তারা শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের পদত্যাগ চাইলেন।

শিল্পীরা জানান, তারা আজ দিনভর বিএফডিসির সামনে মানববন্ধন করবেন। ‘যে নেতা শিল্পীদের সম্মান করে না, তাকে আমরা চাই না’- এমন স্লোগান দিয়ে ভোটাধিকার ফেরত দেওয়ার পাশাপাশি মিশা-জায়েদর পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

মানববন্ধনে আসা শিল্পীরা বলেন, ‘সিনেমায় যারা ছোট চরিত্রে অভিনয় করেন তারাও শিল্পী। তারাও সিনেমার অপরিহার্য অংশ। তাদের বাদ দিয়ে কেউ কখনো সিনেমার কথা ভাবে না। অথচ জায়েদ খান এসেই সবাইকে অপমান করলো। আমরা অনেকদিন ধরেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে আসছিলাম। কিন্তু জায়েদ কোনো কূল-কিনারা করেননি।’

এদিকে আজ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতেও এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। গেল ১৫ জুলাই চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে বয়কটের ঘোষণা দেয় চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠন। চলচ্চিত্রের স্বার্থবিরোধী কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের দুজনকে বয়কট করা হয় বলে জানিয়েছেন প্রযোজক ও পরিচালক সমিতির একাধিক নেতাকর্মী।

এ বিষয়েই শিল্পী সমিতি তাদের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেবে আজ বিকেল সাড়ে ৪টায়। সেইসঙ্গে ১৮৪ জন শিল্পীর ভোটাধিকার বাতিল করা নিয়েও কথা বলবেন শিল্পী সমিতির নেতারা। এফডিসির শিল্পী সমিতির অফিসে এটি অনুষ্ঠিত হবে।

এলএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]