'ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়'

আবু সালেহ সায়াদাত
আবু সালেহ সায়াদাত আবু সালেহ সায়াদাত , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪৩ পিএম, ০৩ আগস্ট ২০১৭

দুপুরের বৃষ্টিতে রাজধানীর অধিকাংশ সড়কেই পানি জমে গেছে। মূল সড়ক থেকে অলিগলি সব স্থানই হাঁটুপানিতে থৈ থৈ করছে।

পানিতে গাড়ি চলাচলের সময় রাস্তার দুপাশে ঢেউ আঁছড়ে পড়ছে। বৃষ্টির পর সচিবালয়ের চারপাশে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়, পানির ঢেউ আঁছড়ে পড়ার মধ্যেই একদল ক্ষুদার্থ মানুষ দুপুরের খাবার খাচ্ছে। আঁছড়ে পড়া ঢেউ বা জলাবদ্ধতার দিকে যেন তাদের কোনো খেয়ালই নেই।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বৃষ্টির পর সচিবালয়ের পিছনের দিকে প্রেসক্লাব সংলগ্ন ভাতের অস্থায়ী হোটেলে দেখা মিললো পাঞ্জাবি-পাজামা পরা এক বৃদ্ধের। ফুটপাতে তখন হাঁটুপানি ভেঙে পথচারীরা পার হচ্ছে, হোটেলও খোলা। এরই মধ্যে বৃদ্ধ পাজামা হাঁটু পর্যন্ত গুটিয়ে ভাত খাচ্ছেন হোটেলের টুলে বসে।

আলাপকালে তিনি বলেন, ‘বাবা খুব ক্ষুধা লেগেছে, তাই হাঁটুপানির দিকে খেয়াল নেই। সকালে কাজে বের হয়েছি, তেমন কিছু খাওয়া হয়নি। ক্ষুধার জ্বালায় বাধ্য হয়েই খেতে বসেছি।’

এ বিষয়ে অস্থায়ী এ হোটেলের মালিক শহিদুল ইসলাম শহিদ বলেন, হোটেলে হাঁটুপানি, গাড়ি গেলে ঢেউ এসে আঁছড়ে পড়ছে। বেশি ক্ষুধার্ত কাস্টমারই এ পরিবেশেও দুপুরের খাবার খেতে আসছেন, খাচ্ছেন।

অন্যদিকে সচিবালয়ের মূল গেটের উল্টো দিকে ওসমানী উদ্যান সংলগ্ন ফুটপাতে জলাবদ্ধতা, হাঁটুপানি, পানির ঢেউয়ের মধ্যে ভাত খাচ্ছিলেন ফুটপাতের দোকানি মুকুল হোসেন।

rain

তিনি বলেন, বৃষ্টি হলেই প্রতিদিনই এমন হয় এখানে। এর মধ্যেই দোকানদারি করি। জলাবদ্ধতা হয়েছে, ঢেউ এসে আঁছড়ে পড়ছে তাতে কী? ক্ষুধার জ্বালায় এরই মধ্যে ভাত খাচ্ছি। কারণ একটু পরই আবার বেচাকেনা শুরু হবে, তখন তো খেতে পারব না।

হঠাৎ বৃষ্টিতে ছন্দপতন হয়েছে রাজধানীবাসীর স্বাভাবিক জীবনযাত্রায়। বৃষ্টিতে কোথাও কোথাও পানি জমে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। ড্রেনের ময়লা বৃষ্টির পানিতে মিশে রাজধানীর সড়কগুলো একাকার। বৃষ্টির কারণে রাজধানীর জনজীবন এখন চরম বিপর্যস্ত। এর মধ্যে তীব্র যানজটে রাজধানীর জনজীবনে দেখা দিয়েছে নাভিশ্বাস। বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতা আর যানজটে হাবুডুবু খাচ্ছে নগরবাসী। এ অবস্থায়ও ক্ষুধার্তের ভাত খাওয়ার এমন দৃশ্য দেখলে যে কারও মনে আসে বিখ্যাত কবিতার লাইন 'ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, পূর্ণিমা-চাঁদ যেন ঝালসানো রুটি'....

এএস/এএইচ/আরআইপি