বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে অটিজম শিশুদের বিনামূল্যে সুন্নতে খাতনা

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৩ এএম, ১২ জুন ২০১৭

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেছেন, অটিস্টিক শিশুদের পাশে রাষ্ট্র ও সরকার রয়েছে। দেশের চিকিৎসকরা তাদের পাশে আছেন।

তিনি বলেন, বর্তমান প্রশাসন অটিস্টিক শিশুদের পাশে রয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অটিস্টিক শিশুদের চিকিৎসাসেবাসহ সব ধরনের সহায়তা দেয়া অব্যাহত থাকবে।

বিএসএমএমইউর শিশু সার্জারি বিভাগের উদ্যোগে সোমবার সকালে কেবিন ব্লকের নবম তলায় এস্টাবলিসমেন্ট অব ইনস্টিটিউট ফর নিউরোডিসঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম (ইপনা) প্রকল্পের আওতায় পরিচালিত ইপনা অটিজম স্কুল ডে-কেয়ার-এ অধ্যয়নরত অটিজম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন শিশুদের বিনামূল্যে সুন্নতে খাতনা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন এস্টাবলিশমেন্ট অব ইনস্টিটিউট ফর পেডিয়াট্রিক নিইরোডিজঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম ইন বিএসএমএমইউ প্রকল্পের পরিচালক অধ্যাপক ডা. শাহীন আকতার।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিশু সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (হাসপাতাল) বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. আব্দুল্লাহ আল হারুন, ইপনার উপ প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল কাদের, সহযোগী অধ্যাপক ডা. গোপেন কুমার কুণ্ডু, শিশু সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. একেএম জাহিদ হোসেনসহ অটিস্টিক শিশু, তাদের বাবা-মা এবং সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ও নার্সরা উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. তোসাদ্দেক হোসেন সিদ্দিকী জামাল।

এদিন ইপনা অটিজম স্কুলে অধ্যায়নরত সংযুক্ত তালিকার ১১ জন অটিজম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন শিশুদের বিনামূল্যে সুন্নতে খাতনা করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য আরও বলেন, অটিস্টিক শিশুরা আজ আর অবহেলিত নয়। তাদের পাশে সবাই রয়েছেন। অটিস্টিক শিশুদের প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতা, উদারতা, মহানুভবতা, ঐকান্তিক ইচ্ছা ও সহযোগিতা এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কন্যা, আন্তর্জাতিকখ্যাতি সম্পন্ন অটিজম বিশেষজ্ঞ, ও ন্যাশনাল এডভাইজরি কমিটি অন অটিজম অ্যান্ড নিউরো-ডেভলপমেন্টাল ডিসঅর্জারের চেয়ারম্যান সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের প্রচেষ্টার ফলেই এসব সম্ভব হয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইপনার প্রকল্প পরিচালক অধ্যাপক ডা. শাহীন আকতার বলেন, প্রথমবারের মতো এ ধরনের সুন্দর ও মহতী কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও অটিস্টিক শিশুদের চিকিৎসাসেবাসহ সার্বিক সহায়তা প্রদানে ইপনা কাজ করে যাবে।

সভাপতির বক্তব্যে শিশু সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিন বলেন, শিশু সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকরা অটিস্টিক শিশুদের যেকোনো প্রয়োজনে সেবা প্রদানে প্রস্তুত আছেন। তারা এসব শিশুদের অত্যন্ত দরদ, আন্তরিকতায় সেবা দিয়ে যাবেন।

অটিজম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন শিশুদের বিনামূল্যে সুন্নতে খাতনায় শিশু সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিনের নেতৃত্বে ওই বিভাগের সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা, অ্যানেসথেশিয়া বিভাগের চিকিৎসকরা ও সংশ্লিষ্ট নার্সরা অংশ নেন।

এমইউ/এসআর/জেআইএম