বিয়ের এক আসরেই এক বরের দুই বউ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩৩ এএম, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

লোকজনকে দাওয়াত করে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানেই দুই নারীকে বিয়ের ‘স্বপ্ন’ দেখেছিলেন ভারতের এক যুবক। সে মোতাবেক বিয়ের কার্ডও ছাপা হয়েছিল। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ওই কার্ডের ছবি ভাইরাল হওয়ার পর দায়িত্বপ্রাপ্তদের তৎপরতায় শেষ পর্যন্ত সেই স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে ওই যুবকের।

অভূতপূর্ব এ ঘটনাটি ঘটতে যাচ্ছিল ভারতের বিরুদ্বনগর জেলায়। ঘটনার মূলে ছিলেন রামমূর্তি নামে ৩১ বছর বয়সী এক মেষপালক। কালাইসেলভি নামে এক নারী, সম্পর্কে রামমূর্তির বোন, চেয়েছিলেন ভাইয়ের সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে দেবেন। কালাইসেভির মেয়ের নাম রেনুকাদেবী, বয়স ২১, শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক।

কিন্তু কেবল রেণুকাতেই মন ভরছিল না রামমূর্তির। তার দরকার ছিল আরও একটা বউয়ের এবং দুই নারীকেই তিনি একই আসরে বিয়ের ইচ্ছার কথা জানান। এরপর বিষ্ময়করভাবে রামমূর্তির ওই প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায় কালাইসেলভির পরিবার। সিদ্ধান্ত হয় তার আরেক বোনের মেয়ে ২০ বছর বয়সী গায়েত্রিকেও বিয়ে করবেন রামমূর্তি।

অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই বিয়ের কার্ড ছাপানো হয়। সেখানে লেখা হয় ৪ সেপ্টম্বর রামমূর্তি রেণুকাদেবী ও গায়েত্রির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন। দ্রুতই ওই বিয়ের কার্ডের ছবি সামাজিকে যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

ওই বিয়ের কার্ডের ছবি দেখে সি. কুমার নামে একজন লিখেছেন, আমি আমার চোখকে বিশ্বাস করতে পারছি না। অনেকে আছে ভালো চাকরি-বাকরি থাকার পরও বিয়ের জন্য একটা মেয়ে খুঁজে পায় না। আর এই লোক একসঙ্গে দু’জনকে বিয়ে করছে।

তবে এই বিয়ের কার্ডের ছবি দেখে দুই কনের অভিভাবককে ডেডে পাঠান জেলা সমাজ কল্যাণ বিভাগের এক কর্মকর্তা। অভিভাবকরা ওই কর্মকর্তাকে জানান, তারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কারণ তারা কন্যাদায়গ্রস্ত। এ ছাড়া এক জ্যোতিষিও তাদের বলেছেন, রামমূর্তির দুই বউ হবে।

শেষ পর্যন্ত অবশ্য গায়েত্রি এই বিয়ে থেকে দূরে সরে এসেছেন। আজ সোমবার পুলিশের উপস্থিতিতে কেবল রেণুকাদেবীকেই বিয়ে করবেন রামমূর্তি।

সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস।

এনএফ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :