পশ্চিমবঙ্গে ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া মোটরসাইকেল বিক্রি বন্ধ

মনিকা সাহা
মনিকা সাহা মনিকা সাহা , কলকাতা প্রতিনিধি কলকাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫১ পিএম, ০৪ জুলাই ২০১৮

ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকলে কোনো ক্রেতা এখন থেকে মোটরসাইকেল কিনতে পারবেন না। ক্রেতাকে মোটরসাইকেল কিনতে হলে সঙ্গে তার ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে যেতে হবে। খুব শিগগিরই ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার এমন কঠোর নির্দেশনা জারি করতে যাচ্ছে।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে রাজ্য সরকারের নেয়া কর্মসূচি ‘সেফ ড্রাইভ সেফ লাইফ’ এর অংশ হিসেবে এমন কড়াকড়ির দিকে যাচ্ছে মমতা ব্যানার্জির প্রশাসন।

বুধবার কলকাতায় পরিবহন দফতর অফিসে জেলাস্তরের পরিবহন দফতরের কর্মকর্তা ও কর্মীদের সঙ্গে পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ও পরিবহন সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় ভিডিও কনফারেন্স করেন। সরকারের এই সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেয়া হয়।

বলা হয়, কেউ ড্রাইভিং লাইসেন্স না দেখাতে পারলে তার কাছে কোনো বিক্রেতা মোটরসাইকেল বিক্রি করতে পারবেন না। এমন ঘটনা ঘটলে বিক্রেতার ব্যবসায়ী লাইসেন্স বাতিলসহ আর্থিক জরিমানাও করা হতে পারে বলে মন্ত্রী-সচিব তাদের কড়া মনোভাবের কথা জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল সূত্র এই তথ্য জানা গেছে।

এর আগে রাজ্যটিতে ‘নো হেলমেট নো ফুয়েল’ ফরমান জারি করেছিল মমতার সরকার। তাতে কোনো বাইক-চালকের মাথায় যদি হেলমেট না দেখা যায় তবে পেট্রোলপাম্প কর্তৃপক্ষ ওই মোটরসাইকেলে তেল বিক্রি করবে না। পেট্রোলপাম্পের মালিকরা যাতে কোনো রকম ফাঁকি না দিতে পারেন, তার জন্য প্রত্যেক পাম্পে বাধ্যতামূলক ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ইনস্টলও করতে হয়েছে।

আর সেই ফুটেজ সরকারের পরিবহন দফতরের কর্মকর্তারা নিয়মিত পরীক্ষা করেন এখনও। প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এই সিদ্ধান্তে ব্যাপক সাড়া পড়ে এবং সড়ক দুর্ঘটনাও অনেকটাই কমে যায়।

এবার রাজ্য সরকার ‘নো ড্রাইভিং লাইসেন্স নো মোটরসাইকেল’ এই নীতি শুরু করলে দুর্ঘটনা আরও কমবে বলেই মনে করছেন সাধারণ মানুষ।

এমআরএম/এমএস