মোদির সঙ্গে দেখা করতে না পারায় বাসে আগুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৯ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ভারতের উত্তর প্রদেশের এক নারী দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখা করতে না পেরে বাসে আগুন দিয়েছেন। বুধবার প্রদেশটির বারণসি থেকে লক্ষ্ণৌ যাওয়ার পথে এ বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি। এ ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও বাসটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ওই নারীকে আটক করেছে পুলিশ। খবর এনডিটিভির।

পুলিশ জানিয়েছে ওই মহিলার নাম বন্দনা রঘুবংশি। তিনি উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলকে নিয়ে আলাদা রাজ্য গঠনের দাবিতে আন্দোলন চালাচ্ছেন। পূর্বাঞ্চল জন আন্দোলন সমিতির সাধারণ সম্পাদক তিনি। এর আগে চলতি বছরের আগস্টে আমরণ অনশনে বসেন। কিন্তু বেশ কয়েকদিন পরে জোর করে তার অনশন ভাঙায় স্থানীয় প্রশাসন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, প্রদেশটির রাজ্য নিয়ন্ত্রিত পরিবহন সংস্থার একটি গাড়ি আনুমানিক ১১ টার সময় বারণসি থেকে লক্ষ্ণৌ যাচ্ছিল। সে সময় বাসটি বারাণসী কান্টনমেন্ট স্টেশনে পৌছালে যাত্রীদের সবাইকে নেমে আসতে বলেন তিনি। এরপর বাসের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেন। পরে দমকল বাহিনীর প্রায় একঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

তারপরও বন্দনা রঘুবতী নামের ওই নারী সেখানে আলাদা রাষ্ট্রের দাবিতে প্রচারপত্র বিলি করতে থাকে। বন্দনা বলেন, অনেকদিন ধরেই তিনি আলাদা রাষ্ট্রের দাবীতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং প্রদেশটির মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিয়ানাথ’র সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু যতই দিন গেছে তার এ চেষ্টা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজের জন্মদিন উপলক্ষ্যে বারাণসীতে গিয়েছিলেন। সেখানেই ওই নারী মোদির সঙ্গে দেখা করতে গেলে পুলিশ তাকে বাঁধা দেয়। বন্দনা অভিযোগ করে বলেন, তিনি শান্তিপূর্ণভাবে অনশন করলেও গণমাধ্যম সেটা প্রচার করে নি। এখন এই বাসে আগুন দেওয়ার মাধ্যমে তার বার্তা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আর প্রাদেশিক মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিয়ানাথ’র কাছে পৌছে যাবে।

এসএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :