মোদিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে আসামে ফের ধর-পাকড়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০১৮

নাগরিক পঞ্জিকা থেকে বাদ পড়া বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানো ও ধর-পাকড় নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশকে দেয়া আশ্বাসকে বুড়ো আঙুল দেখাল আসাম রাজ্য সরকার। দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলের এই প্রদেশ থেকে অবৈধ অভিবাসী সন্দেহে ৩১ বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করেছে রাজ্যের নিরাপত্তাবাহিনী।

আসাম পুলিশের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা বলেছেন, সোমবার ওই বাংলাদেশিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা বেঙ্গালুরু থেকে ট্রেনযোগে আসামে এসেছিল।

আসামের রেলওয়ে পুলিশ সুপার হেমন্ত কুমার দাস বলেছেন, গুয়াহাটি-বেঙ্গালুরু এক্সপ্রেসে করে ৩১ বাংলাদেশি আসামের গুয়াহাটিতে আসে। বাংলাদেশিদের এই দল আগরতলায় যাওয়ার জন্য কাঞ্চনজঙ্ঘা ট্রেনের অপেক্ষা করেছিল।

জিজ্ঞাসাবাদের সময় তারা স্বীকার করেছে যে, কোনো ধরনের বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই তারা বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে কেউ কেউ চার বছর আগে ভারতে আসে এবং অনেকেই বেঙ্গালুরুতে শ্রমিকের কাজ করেছিল।

হেমন্ত কুমার দাস বলেন, তাদের পরিকল্পনা ছিল আগরতলা পৌঁছানো এবং সেখান থেকে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করা। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ১০ জন পুরুষ, আটজন নারী, আট কিশোর ও পাঁচ তরুণী ছিল।

আসামে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসা এই বাংলাদেশিদের এমন এক সময় গ্রেফতার করা হলো, যার কয়েকদিন আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম ভারতীয় দৈনিক দ্য হিন্দুকে বলেন, আসামের জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকা (এনআরসি) থেকে বাদ পড়াদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে না বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অাশ্বস্ত করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

গত ৩০ জুলাই ভারতীয় নাগরিকত্বের চূড়ান্ত খসড়া তালিকা থেকে অাসামের প্রায় ৪০ লাখ মানুষের নাম বাদ দেয় প্রদেশের সরকার। আসামের ন্যাশনাল রেজিস্ট্রার অব সিটিজেন (এনআরসি) কর্তৃপক্ষের তালিকা থেকে বাদ পড়ে তারা।

বাংলাদেশ থেকে আসামে পাড়ি জমানো অবৈধ অভিবাসীদের চিহ্নিত করার লক্ষ্যে ১৯৫১ সালের পর সেই সময় প্রথম নাগরিকত্বের তালিকা হালনাগাদ করে আসাম।

গত মাসে ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাধারণ সম্পাদক রাম মাদভ বলেন, চূড়ান্ত নাগরিক পঞ্জিকা থেকে বাদ পড়াদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। বিজেপির সভাপতি অমিত শাহও একই সুরে বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে ভারতে আসা প্রত্যেক অবৈধ অভিবাসীকে নিজ দেশে ফেরত যেতে হবে।

বিজেপির এই সভাপতি তাচ্ছিল্য করে বাংলাদেশিদের উইপোকা বলে অভিহিত করেছিলেন; যা নিয়ে পরে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়। তিনি বলেছিলেন, প্রত্যেক অনুপ্রবেশকারীকে খুঁজে বের করবে বিজেপি সরকার।

উল্লেখ্য, গত রোববার আগ্রা থেকে অবৈধ অভিবাসী সন্দেহে তিন বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করে দেশটির নিরাপত্তাবাহিনী। আগ্রা জেলা পুলিশ ও স্থানীয় গোয়েন্দা বিভাগের যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে ওই তিন বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার এই তিন বাংলাদেশি হলেন, খুলনার বাইগাসা গ্রামের ৪২ বছর বয়সী শহীদুল্লাহ গাজী, তার স্ত্রী রত্না (৪০) ও তার ২২ বছরের ছেলে শামীম। গত ১৫ বছর ধরে তারা ভারতে বসবাস করে আসছিলেন।

সূত্র : আইএএনএস, জিনিউজ।

এসআইএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :