তেল চুরি করতে গিয়ে বিস্ফোরণ, নিহত বেড়ে ৭৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৩ এএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

মেক্সিকোর হিদালগো প্রদেশের ঘটনা। পাইপলাইন থেকে তেল চুরি দেশটির নিম্নবিত্ত মানুষের প্রতিদিনকার ঘটনা। নিয়মমতো সেদিনও তারা তেল চুরি করতে যান। কিন্তু তেল সংগ্রহের সময় পাইপলাইনে বিস্ফোরণ ঘটে। শুক্রবারের ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৭৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

রোববার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে হিদালগো প্রদেশের গভর্নরের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, শুক্রবারের ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৭৩ জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছে তারা। প্রাথমিকভাবে ২০ জনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেলেও শনিবার তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬৬ জনে।

ঘটনাটি শুক্রবার রাতের। পাইপলাইনের ফুটো থেকে স্থানীয় বাসিন্দার তেল সংগ্রহ করতে যান। কিন্তু হঠাৎ বিকট শব্দে পাইপলাইনে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণ থেকে সৃষ্ট আগুনের লেলিহান শিখায় দগ্ধ হয়েছেন কয়েক ডজন মানুষ। দগ্ধ ৫৪টি মরদেহ এত বেশি পুড়ে গেছে যে তাদের পরিচয় শনাক্ত করতে দীর্ঘ সময় লেগে যাবে।

Mexico

হিদালগো প্রদেশের কর্মকর্তারা বলেছেন, শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে কয়েক ডজন মানুষ হুড়োহুড়ি করে কন্টেইনারে তেল ভরানোর সময় বিস্ফোরণ ও আগুনের সূত্রপাত হয়। লাহুয়েলিলপ্যান শহরের কাছে সন্দেহভাজন তেল চোররা ওই পাইপলাইন ফুটো করে দেয়ায় বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে দাবি করছে তারা।

মেক্সিকোর রাষ্ট্রীয় জ্বালানি কোম্পানি পেমেক্স এক বিবৃতির মাধ্যমে জানিয়েছে, তেলের পাইপলাইনে অবৈধ ফুটো করার কারণে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। বিস্ফোরণের পর ওই এলাকায় হাজার হাজার মেরিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তাছাড়া সেখানে তেলের সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা।

Mexico

উল্লেখ্য, মেক্সিকান এই তেল কোম্পানির পাইপলাইন বিস্ফোরণে মানুষের প্রাণহানির রেকর্ড কম নয়। ২০১৩ সালে মেক্সিকো সিটিতে ওই কোম্পানির প্রধান কার্যালয়ে এক বিস্ফোরণে ৩৭ জনের প্রাণহানি ঘটে। তার আগের বছর তাদের এক গ্যাস স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ডে ২৬ জন মানুষের মৃত্যু হয়।

এসএ/এমএস