নওয়াজ শরিফকে সাজা দিতে বাধ্য করা হয়েছিল, স্বীকারোক্তি বিচারকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৫৩ পিএম, ০৭ জুলাই ২০১৯

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে সাজা দিতে বিচারককে বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ। পাকিস্তান মুসলিম লীগের-নওয়াজ (পিএমএল-এন) এই নেত্রী তার বাবাকে দেয়া আদালতের বিচারকের সাজা নিয়ে অভিযোগ করেছেন।

দুর্নীতির মামলায় নওয়াজ শরিফকে সাজা দিতে দেশটির জাতীয় তদন্ত সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টাবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) একজন বিচারকের দেয়া স্বীকারোক্তির একটি ভিডিও প্রকাশ করেন মরিয়ম নওয়াজ। এতে ওই বিচারক স্বীকার করেছেন যে, দুর্নীতির মামলায় সাজা দিতে তাকে (বিচারককে) ব্লাকমেইল এবং বাধ্য করা হয়েছে।

লাহোরে শনিবার দলটির শীর্ষস্থানীয় নেতাদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মরিয়ম নওয়াজ। এ সময় তিনি বলেন, তার বাবার বিচারপ্রক্রিয়া মারাত্মকভাবে সাজানো।

দেশটির সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী একটি দুর্নীতির মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ড ভোগ করেছেন। গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর থেকে তিনি লাহোরের কোট লাখপাত কারাগারে বন্দি। পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে নাম আসা সাবেক এই পাক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আরো দুটি দুর্নীতির মামলা বিচারাধীন।

তবে নওয়াজ শরিফ এবং তার পরিবারের সদস্যরা বলছেন, তারা কোনো ধরনের দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নন। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কারাদণ্ডাদেশ দেয়া দেশটির আইনজীবী আল-আজিজিয়া পিএমএল-এনের সমর্থক নাসির ভাটের কাছে স্বীকার করেছেন যে, গুপ্ত বাহিনীর সদস্যরা তাকে নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে সাজা দিতে বাধ্য এবং ব্লাকমেইল করেছে। বিচারকের দেয়া এই স্বীকারোক্তির ভিডিও প্রকাশ করেছেন মরিয়ম নওয়াজ।

কিন্তু ইমরান খান নেতৃত্বাধীন পাক সরকার বলছে, এই ভিডিও সম্পাদনা করে প্রকাশ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে। একই সঙ্গে এটাকে দেশটির বিচার বিভাগের ওপর হামলা বলেও মন্তব্য করেছে।

সূত্র : পিটিআই।

এসআইএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]