জাপানে স্টুডিওতে হামলাকারীর পরিচয় জানাল পুলিশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৭ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৯

জাপানের একটি অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৩৩ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় আটক সন্দেহভাজন অভিযুক্ত ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করেছে দেশটির পুলিশ। গত দুই দশকের মধ্যে দেশটির সবচেয়ে ভয়াবহ এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত ওই ব্যক্তির নাম শিনজি আওবা।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবারের ওই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় হামলাকারী নিজেও দগ্ধ জন। হামলার পর অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে পুলিশ। তিনি এখন হাসপাতালে পুলিশের হেফাজতে আছেন। সুস্থ হলে তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

গত বৃহস্পতিবার জাপানের নামকরা স্টুডিও কিয়াটো অ্যানিমেশনের ভবনে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। গত দুই দশকের মধ্যে জাপানের ভয়াবহ এই হামলায় অন্তত ৩৩ জন নিহত ছাড়াও মারাত্মক দগ্ধ হয়ে গুরতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছেন আরও ৩৬ জন।

অভিযূক্ত শিনজি আওবাকে আটক করার সময় যারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন তারা বিবিসিকে বলেছেন, তিনি চিৎকার করে বলছেন ওই কোম্পানি (কিয়াটো অ্যানিমেশন) ‘তার আইডিয়া চুরি’ করেছে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, আগুন লাগার সময় অভিযূক্ত আওবা পাশের একটি পেট্রল স্টেশন থেকে দুটি কন্টেইনারে পেট্রল ভরছেন।

পুলিশ বলছে, হামলাকারী ভবনে প্রবেশ করেই বাকেট ভর্তি তরল দাহ্য পদার্থ চারপাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে দেন। তারপর তিনি আগুন দেন সেগুলোতে। আগুন দেয়ার সময় তিনি ‘মরে যাও’ বলে চিৎকার করছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কিয়াটো অ্যানিমেশনের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, সম্প্রতি তাকে হুমকি দিয়ে লেখা একটি চিঠি পান তিনি কিন্তু সেই চিঠির সঙ্গে এই হামলার কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কি না সে সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই তার। জাপানের পাবলিক ব্রডকাস্টার এনএইচকে বলছে, আটক আবওয়ার নামে ক্রিমিনাল রেকর্ড আছে এবং এর আগেও সে অর্থ চুরির দায়ে জেল খেটেছিল।

কিয়াটো অ্যানিমেশন মূলত সিনেমা, ভিডিও অ্যানিমেশন, গ্রাফিক নোভেল, টিভি সিরিজ তৈরির জন্য বিখ্যাত। বিবিসি বলছে, তারা তাদের কাজের মান দিয়ে গোটা জাপানের মানুষের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় একটি প্রতিষ্ঠান। স্টুডিওটি ‘কিয়োঅ্যানি’ নামেই বেশি পরিচিত।

এসএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :