মোদি-ইমরান আমার দুই ভালো বন্ধু : ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:২৬ পিএম, ২০ আগস্ট ২০১৯

কাশ্মীর ইস্যুতে উত্তেজনা কমাতে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনান্ড ট্রাম্প। তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে নিজের বন্ধু বলে অভিহিত করেছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন ট্রাম্প। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের স্বায়ত্বশাসন সংক্রান্ত দেশটির সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর প্রতিবেশী বৈরী দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে

দুই নেতার সঙ্গে আলোচনার পর এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমার দুই ভালো বন্ধু, ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে কথা বললাম। বাণিজ্য, কৌশলগত অংশীদারি এবং সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে ভারত ও পাকিস্তানকে কাশ্মীরে উত্তেজনা হ্রাসের জন্য কাজ করতে বললাম। কঠিন পরিস্থিতি, কিন্তু ভালো আলাপ হয়েছে।’ 

ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে কাশ্মীরের স্বায়ত্ত্বশাসনের মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর থেকে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে দিন দিন সম্পর্কের অবনতি হচ্ছে। ভারত অভ্যন্তরীন বিষয় বললেও পাকিস্তান বিষয়টি নিয়ে কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে।

ভারত সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ট্রাম্পকে বলেছেন যে ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী ও মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধি দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য নিয়ে ফের আলোচনায় বসবেন বলে আশা করছেন তিনি। সীমান্ত সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কথা হয়েছে তাদের মধ্যে।’

হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘বাণিজ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে তারা যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের অর্থনৈতিক মিত্রতা কীভাবে আরও জোরদার করার দিকে এগিয়ে নিতে পারেন তা নিয়ে ফের আলোচনা করেছেন দুই নেতা। তারা শিগগিরই আবার দেখা করার প্রত্যাশা করছেন।’

হোয়াইট হাউস আরও জানিয়েছে, টেলিফোন কথোপকথনে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা হ্রাসের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টিতেও জোর দিয়েছেন ট্রাম্প। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনা করেন তিনি।

হোয়াইট হাউসের বিবৃতি অনুযায়ী, ‘কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা ও বাদানুবাদ হ্রাসের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনার জন্য ট্রাম্প পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গেও কথা বলেছেন৷ পরিস্থিতির আরও অবনতি এড়ানোর প্রয়োজনীয়তা পুনর্ব্যক্ত করে উভয়পক্ষকে সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।’

সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর কাশ্মীরে কারফিউ জারি হয়। মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত ৫০ হাজান নিরপত্তারক্ষী। ইন্টারনেট ও ফোন সংযোগও বিচ্ছিন্ন। প্রতিক্রিয়ায় পরিবহন ও বাণিজ্য সম্পর্ক ছিন্নসহ ভারতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করে পাকিস্তান।

ভারতীয় সংবিধানের যে অনুচ্ছেদের ফলে জম্মু ও কাশ্মীর বিশেষ স্বায়ত্তশাসনের মর্যাদা পেয়ে আসছিল সেই ৩৭০ অনুচ্ছেদ গত ৫ আগস্ট বাতিল করে মোদি সরকার। পাশাপাশি রাজ্যটিকে দুভাগ করে কেন্দ্রের শাসনে নিয়ে আসে।

এসএ/এমএস