খাশোগি হত্যায় টাকার বিনিময়ে কথা বলছেন এরদোয়ান : সৌদি প্রিন্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৯ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সৌদি আরবের জড়িত থাকার অভিযোগের ব্যাপারে কথা বলতে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান অর্থ নিয়েছেন। মঙ্গলবার তুর্কি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছেন সৌদি প্রিন্স আব্দুল রহমান বিন মুসাইদ ব্নি আব্দুল আজিজ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক টুইটে সৌদি এই প্রিন্স বলেছেন, এরদোয়ান তার বাজে কথা চালিয়ে যাচ্ছেন। এটা নতুন কিছু নয়। গত মাসের শেষ ১০দিনের প্রত্যেক দিন এরদোয়ান খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে কথা বলেছেন। এই সময়ে তিনি সৌদি আরবের জড়িত থাকার ব্যাপারে পুরোনো এবং নতুন একই দাবির পুনরাবৃত্তি করেছেন।

সৌদি এই প্রিন্স বলেন, তিনি জানেন যে, এ ধরনের কথা বলে অতীতে কোনো কাজ হয়নি। সম্ভবত পাওনা বকেয়া আদায়ের জন্য তিনি আবারও একই বিষয়ে কথা বলা শুরু করেছেন।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনের ফাঁকে সেখানে তুর্ক এবং মুসলিমদের একটি গ্রুপের সঙ্গে বৈঠক করেন এরদোয়ান। এই সাক্ষাতের পর এরদোয়ানের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে কথা বলার অভিযোগ করলেন সৌদি প্রিন্স।

বৈঠকে এরদোয়ান বলেন, তিনি খাশোগি হত্যাকাণ্ড ও মিসরের অবাধ নির্বাচনে প্রথম নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির মৃত্যুর ব্যাপারে প্রকৃত তথ্য উদঘাটনে কাজ অব্যাহত রাখবেন।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে প্রয়োজনীয় নথি আনতে গিয়ে সেখানে রিয়াদের পাঠানো একদল ঘাতকের হাতে খুন হন সাংবাদিক জামাল খাশোগি। সৌদি রাজপরিবারের উপদেষ্টা থেকে সমালোচক বনে যাওয়া এই সাংবাদিক দীর্ঘদিন ধরে নির্বাসিত ছিলেন। নিজের দ্বিতীয় বিয়ের জন্য নথি আনতে ইস্তাম্বুলে সৌদি কন্যস্যুলেটে যান খাশোগি।

জাতিসংঘ এবং যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ দীর্ঘ তদন্তের পর বলছে, সৌদি আরবের যুবরাজ ও ডি ফ্যাক্টো নেতা মোহাম্মদ বিন সালমানের কাছে থেকে জামাল খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ এসেছিল। সৌদির রাজপরিবারের এই সমালোচক ও সাংবাদিক কনস্যুলেটে খুন হয়েছে বলে রিয়াদ স্বীকার করলেও এখন পর্যন্ত তার মরদেহের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

এসআইএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]