ডিআর কঙ্গোতে বিদ্রোহী হামলায় নিহত ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৫৯ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৯

মধ্য আফ্রিকার দেশ ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর উত্তরাঞ্চলীয় একটি এলাকায় দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহীদের হামলায় অন্তত ১৯ জন সাধারণ নাগরিক নিহত হয়েছেন। বেনি শহর থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরের ওইচা নামক একটি গ্রামে গতকাল বুধবার এই হামলার ঘটনা ঘটে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দেশটির সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী অ্যালাইড ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস (এডিএফ) ওই গ্রামটিতে হামলাটি চালায়। কঙ্গোতে নিযুক্ত জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশন ও সরকারি নিরাপত্তা বাহিনী বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপত্তা দিতে না পারায় সেখানকার মানুষ এ নিয়ে বেশ ক্ষুব্ধ।

বেনি অঞ্চলের প্রশাসনিক প্রধান ডোনাট কিবাওয়ানা বলেন, ‘হামলায় নিহত অনেক পরিবারের সদস্যরা তাদের বাড়িতে ফিরতে চাইছেন না। কারণ তারা ফের হামলার আতঙ্কে ভুগছেন। আমরা প্রথামিকভাবে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ১৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছি।’

প্রশাসক আরও বলেন, ‘আমরা আমাদের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছি। আমরা বেনি অঞ্চলে সামরিক উপস্থিতি আরও বাড়িয়েছি। সেনাবাহিনী বিদ্রোহীদের তাড়া করেছে। আমরা সাধারণ মানুষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।’ আলজাজিরা বলছে, বিকৃত অবস্থায় উদ্ধার হওয়া মরদেহগুলোর মধ্যে অনেকগুলোর মাথা থেকে শরীর বিচ্ছিন্ন।

গত রোববার বেনি অঞ্চলে হামলা করেছিল সশস্ত্র বিদ্রোহীগোষ্ঠী এডিএফ। সেদিনের হামলায় আটজন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়। তারপর রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করে সাধারণ জনতা। এছাড়া বেনি শহর ছাড়াও ওই অঞ্চলের অন্যত্র জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনের ব্যর্থতার অভিযোগে ক্ষোভ প্রকাশ করে।

এদিকে দেশটিতে জাতিসংঘ মিশন আলজাজিরাকে জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার বেনি শহরে এক তরুণ বিক্ষোভকারীর দ্বারা শান্তিরক্ষী মিশনের এক সদস্য নিহত হয়েছে। তারা বলছে আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করলেও আমাদের সহযোগিতা করা হচ্ছে না। বিক্ষোভকারীরা গুলি করে শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের মেরে ফেলছে।

এসএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]