বাংলায় স্ট্যাটাস দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রত্যাশী বার্নি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১৪ এএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

মার্কিন সিনেটর ও ডেমেক্র্যাট রাজনীতিবিদ বার্নি স্যান্ডার্স। যিনি কর্পোরেট মুনাফাবাদের বিরোধী। ‘রাজনৈতিক বিপ্লব’ ঘটানোর প্রত্যয় নিয়ে ইতোমধ্যে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য প্রচারণা শুরু করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদপ্রত্যাশী এই নেতা তার ভেরিফাইড ফেসবুজ পেজে বাংলা ভাষায় একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। যাতে তিনি লিখেছেন, ‘স্বাস্থ্যসেবা একটি মানবাধিকার।’

বুধবার দেয়া তার এই পোস্টে ৩ ঘণ্টায় ২ হাজার লাইক ও ৩০০ কমেন্ট পড়েছে এবং পোস্টটি শেয়ার করেছেন সাড়ে ৫০০ লোক। কমেন্টে তার প্রশংসা করছেন অনেকে। অনেক বাঙালিও এতে কমেন্ট করেছেন।

মহসিন মনসুর নামে এক বাঙালি লিখেছেন, ‘ধন্যবাদ। বার্নিকে রাষ্ট্রপতি হিসেবে দেখতে চাই।’

ফয়সাল তানিম নামে একজন লিখেছেন, ‘২০২০ এর জন্য বার্নি!!’

পলাশ সাহু নামে এক ভারতীয় বাঙালি লিখেছেন, ‘আপনার এই কথায় সহমত পোষণ করি। আগামী মার্কিন নির্বাচনের জন্য শুভকামনা রইল। ইতি, একজন ভারতীয় বাঙালি।’

বার্নি স্যান্ডার্স শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ালেখা করেন এবং ১৯৬০ ও ১৯৭০ এর দশকে যুদ্ধবিরোধী এবং নাগরিক অধিকারের জন্য হওয়া আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৯০ সালে ৪০ বছরের মধ্যে প্রথম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মার্কিন প্রতিনিধি সভার একজন প্রতিনিধি নির্বাচিত হন স্যান্ডার্স।

২০০৭ সালে সিনেটর হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি প্রতিনিধি সভায় অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে শুরুতে খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত না হলেও কয়েকটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে তার বিতর্ক প্রচারিত হবার পর হঠাৎই তার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পায়।

নিজেকে ডেমোক্র্যাটিক সোশ্যালিস্ট হিসেবে দাবি করা স্যান্ডার্স এমন একটি অর্থনীতি তৈরি করার প্রত্যাশা করেন, যা শুধু ধনীদের জন্য নয়, সব পর্যায়ের মানুষের জন্য কাজ করবে।

জেডএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]