ট্রাম্পের অভিশংসনের শুনানি : ডেমোক্রেটদের প্রস্তাব খারিজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৪ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২০

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের বিচার শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে অভিশংসনের পক্ষে নতুন প্রমাণ সংগ্রহে ডেমোক্রেটদের বেশ কিছু প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে সিনেট। শুনানির প্রথম দিনে দীর্ঘ ১৩ ঘণ্টা ধরে বিতর্ক হয়েছে।

রিপাবলিকান সিনেটরদের চাপের মুখে বিচারের শুনানি দ্রুত শেষ করার প্রস্তাবের পক্ষে সমর্থন দেন সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা ম্যাককনেল। ডেমোক্রেটদের দাবি, এটা ধামাচাপা দেবার ঘটনা ছাড়া আর কিছুই হবে না।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং কংগ্রেসের তদন্তে বাধা দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি। মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের দাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে ভুয়া বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প।

সিনেটররা নিরপেক্ষ বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালনের অঙ্গীকার করেছেন। মার্কিন প্রধান বিচারপতি জন রবার্টসের নেতৃত্বে এই বিচার প্রক্রিয়ায় সপ্তাহে ছয়দিন ছয় ঘণ্টা করে শুনানি চলবে। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো কোন মার্কিন প্রেসিডেন্ট অভিশংসন বিচারের মুখে পড়লেন এবং কতদিন ধরে এটা চলবে তাও অনিশ্চিত।

ডেমোক্রেট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে গত মাসে অভিশংসিত হন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। কিন্তু সিনেটে রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় ধারণা করা হচ্ছে যে, তারা প্রেসিডেন্টকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরাবে না।

অভিশংসন বিচারে নথি এবং প্রমাণ সংগ্রহের প্রচেষ্টায় মঙ্গলবার ডেমোক্রেটরা তিনবার সিনেটের ভোটে প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন। দলীয় ভোট অনুসারে এর বিপক্ষে ৫৩টি এবং পক্ষে ৪৭টি ভোট পড়েছে।

ইউক্রেন এবং ট্রাম্প সম্পর্কিত হোয়াইট হাউসের ফাইল উপস্থাপন করতে ডেমোক্রেট নেতা চাক শুমারের প্রস্তাব বাতিল করে দিয়েছেন সিনেটররা।

এছাড়া মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং হোয়াইট হাউসের বাজেট দপ্তরের রেকর্ড এবং নথি প্রকাশের দাবি জানিয়ে আনা একটি প্রস্তাবও বাতিল করে দেয়া হয়েছে। অভিশংসন বিচারের নেতৃত্বে থাকা হাউস ডেমোক্রেট অ্যাডাম শিফ তার উদ্বোধনী বিবৃতিতে বলেন, বেশিরভাগ আমেরিকান বিশ্বাস করেন না যে ন্যায় বিচার হবে।

তিনি বলেন, তারা বিশ্বাস করে না যে সিনেট নিরপেক্ষ হবে। তাদের বিশ্বাস ফলাফল পূর্ব নির্ধারিত। এর আগে প্রেসিডেন্টের আইনজীবী দল এই বিচারকে সংবিধানের বিপজ্জনক বিকৃতি উল্লেখ করে তা থেকে প্রেসিডেন্টের নিস্তার দাবি করে।

প্রেসিডেন্টের আইনজীবীদের সমর্থনে ম্যাককনেল প্রাথমিকভাবে প্রাথমিক যুক্তি-তর্ক সংক্ষিপ্ত করে তিনদিনের পরিবর্তে দুইদিনে শেষ করার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু রিপাবলিকানসহ অন্য সিনেটরদের সাথে এক বৈঠকের পর ম্যাককনেল মঙ্গলবার প্রাথমিক যুক্তি-তর্ক তিন দিনেই শেষ করার পক্ষে মত দেন।

সিনেটররা উদ্বেগ জানিয়ে বলেন যে, মার্কিন ভোটাররা মধ্যরাতের অধিবেশন খুব ভালভাবে দেখবে না। হোয়াইট হাউসের কাউন্সিল এবং প্রেসিডেন্টের প্রধান আইনজীবী বলেন, এটা সুষ্ঠু প্রক্রিয়া। এখানে অন্য কোন বিষয় নেই।

পদ্ধতিগত জটিলতা আরো কয়েক দিন থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ট্রাম্পের বর্তমান ও সাবেক প্রশাসন সদস্যদের উপস্থিতির দাবি জানিয়েছেন ডেমোক্রেটরা। কিন্তু রিপাবলিকানরা সাক্ষী এবং নথির বিষয়ে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন বিচার প্রক্রিয়ায় আরো পরের দিকে নিয়ে যাওয়ার কথা বলছে।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা প্রথম অভিযোগ হলো তিনি ইউক্রেন সরকারের কাছে তাকে নভেম্বরে পুনঃনির্বাচিত হতে সাহায্য করার বিষয়ে সহায়তা চেয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে যে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোডিমির জেলেনস্কির সাথে এক ফোনালাপে, ডেমোক্রেট দলের হোয়াইট হাউসের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিবিরোধী তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। তার ছেলে হান্টার ইউক্রেনের জ্বালানী ফার্ম বুরিশমার একজন বোর্ড সদস্য। তা না হলে তিনি সামরিক সহায়তা স্থগিত রাখার কথা বলেছিলেন।

দ্বিতীয় অভিযোগটি হচ্ছে, কংগ্রেসের কাজে বাধা দেওয়া। গত ১৮ ডিসেম্বর ডেমোক্রেট নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধি পরিষদে ভোটের মাধ্যমে ট্রাম্পকে অভিশংসিত করা হয়। এর শুনানি চলছে সিনেটে।

টিটিএন/পিআর