ইউক্রেনে পরমাণু হামলার প্রয়োজন নেই: পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৪ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২২
সংগৃহীত

ইউক্রেনে পারমাণবিক হামলা চালাবে না রাশিয়া। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ কথা জানিয়েছেন। বেশ কিছুদিন ধরেই ইউক্রেনে আক্রমণের তীব্রতা বাড়াচ্ছে রাশিয়া। চিন্তা বাড়িয়ে কয়েকদিন আগেই নিজেদের আণবিক অস্ত্রের মহড়াও করেছে রুশ সেনা। পুতিনের তদারকিতে চলেছে পারমাণবিক অস্ত্রের মহড়া। সব মিলিয়ে বিশেষজ্ঞদের অনেকেই মনে করেছিলেন এবার ইউক্রেনে পরামাণু হামলা চালাবে রাশিয়া। কিন্তু আপাতত সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন পুতিন।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) একটি আলোচনাসভায় পুতিনকে জিজ্ঞাসা করা হয়, ইউক্রেনে কী পরমাণু বোমা ফেলবে রাশিয়া? উত্তরে পুতিন বলেছেন, আমার মনে হয় না তার দরকার আছে। রাজনৈতিক বা সামরিক, কোনো দিক থেকেই ইউক্রেনে পরমাণু হামলা চালানোর প্রয়োজন নেই।

পুতিনের মতে, যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশগুলো আসলে রাশিয়ার সম্পর্কে বদনাম ছড়াতে চাইছে। সেই জন্যই আন্তর্জাতিক মহলে এই গুজব ছড়িয়ে পড়ছে যে, ইউক্রেনে পরমাণু হামলা চালাতে চলেছে রাশিয়া।

পুতিন আরও বলেছেন, ভয়ংকর নোংরা একটা খেলা খেলছে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো। তাদের নিজেদের মতামত অন্যদের ওপরে চাপিয়ে দিতে চাইছে। গোটা দুনিয়ার ওপরে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে চাইছে আমেরিকা।

এর আগে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু দাবি করেছিলেন, ডার্টি বোমা ব্যবহার করতে চাইছে ইউক্রেন। জাতিসংঘে এই বিষয়ে প্রস্তাব আনে রাশিয়া। তবে সেই দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, আসলে রাশিয়া নিজেই এই বোমা ব্যবহারের কথা ভাবছে। এমন মন্তব্যের জবাবেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি কড়া বার্তা দেন পুতিন।

বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, পুতিনের যদি পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করার ইচ্ছা না থাকে, তাহলে এই প্রসঙ্গে বারবার এত কথা বলেন কেন? রাশিয়ার পারমাণবিক শক্তি নিয়ে এতবার আলোচনা করেন কেন? যেভাবে তিনি পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে বারবার কথা বলেছেন, তা অত্যন্ত বিপজ্জনক।

এর আগেও বাইডেন বলেছেন, পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করলে বিরাট বড় ভুল করবে রাশিয়া। তার যথাযথ পরিনতিও ভোগ করতে হবে পুতিনকে।

এমএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected].com ঠিকানায়।