তিতাসের ১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ : ফারুকের দায় স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:২৯ পিএম, ১৩ জুন ২০২১

রাজধানীর মিরপুরে তিতাসের দেড় হাজার গ্রাহকের গ্যাস বিলের ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় আসামি মো. ফারুক দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রোববার (১৩ জুন) মিরপুর থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা পুলিশের উপপরিদর্শক আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার আসামিকে আদালতে হাজির করা হলে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হন। এরপর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ৮ জুন মো. ফারুককে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে মিরপুর মডেল থানার মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা তাকে সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত মো. মামুনুর রশিদের আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার সূত্রে জানা যায়, রাজধানীর মিরপুরের তিনটি ওয়ার্ডের অন্তত দেড় হাজার গ্রাহক গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির বিল জমা দিতেন ওমর ফারুকের মালিকানাধীন ব্যাংকিং এজেন্ট প্রতিষ্ঠানে। কিন্তু গ্রাহকরা বিলের টাকা জমা দিলেও সেই টাকা তিতাসের অ্যাকাউন্টে জমা না দিয়ে নিজের কাছেই রেখে দেন ফারুক। বিলের টাকা না পেয়ে দেড় বছর পর জানতে পারে তিতাস কর্তৃপক্ষ।

এরপর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার উদ্যোগ নিলে ঘটনাটি জানতে পারেন গ্রাহকরা। ততদিনে ১০ কোটি টাকা মেরে পালিয়ে যায় প্রতারক ফারুক। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গ্রাহকরা মিরপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর গত ৭ জুন রাতে র্যাব-৪ এর একটি দল চট্টগ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে

জেএ/বিএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]