গরম-ঠান্ডায় কাশির সমস্যা? জেনে নিন সারানোর উপায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৩৩ পিএম, ২৬ জুন ২০১৯

তীব্র গরম আবার হুটহাট বৃষ্টি। কখনো গরমে অস্থির আবার কখনো বৃষ্টির কারণে গায়ে কাঁথা জড়িয়ে ঘুম। এদিকে ঘরে কিংবা অফিসে এসিতে থাকা আর বাইরে বের হলেই রোদের চোখ রাঙানি। সব মিলিয়ে গরম আর ঠান্ডায় নাজেহাল হচ্ছেন সবাই। এই সময়টা ঠান্ডা-সর্দি-কাশির খুব প্রিয়। কারণ তারা এই সময়টাতেই আসন গেড়ে বসতে পারে আমাদের শরীরে। খুসখুসে কাশি কিংবা ঘুসঘুসে জ্বর তাড়াতে চাইলে এই উপায়গুলো মেনে চলুন-

আদা
গরম পানিতে ইঞ্চিখানেক আদার টুকরা ফুটিয়ে নিন মিনিট দশেকের জন্য। আদাযুক্ত পানি জুড়াতে সময় দিন। হালকা গরম থাকা অবস্থায় আর লেবুর রস মিশিয়ে মিশ্রণটুকু খেয়ে নিন। দিনে বার তিনেক খেতে পারেন এই মিশ্রণ।

Kashi

মধু
ঠান্ডা লাগা বা কাশি সারাতে মধু বেশ কার্যকর। রাতে শোওয়ার আগে মধু খেয়ে নিলে কাশির সমস্যা দূর হবে। দুধের সঙ্গে মধু মিশিয়েও খাওয়া যায়।

Kashi

লবণ-পানি
এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে আধা চা চামচ লবণ মিশিয়ে এই মিশ্রণটি দিয়ে গার্গল করুন। লবণ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে ফোলাভাব কমায় আর গলা পরিষ্কার রাখে। প্রতিদিন তিনঘণ্টা পরপর এই মিশ্রণ ব্যবহার করে দেখুন।

Kashi

আপেল সাইডার ভিনিগার
গলার মিউকাস ভাঙতে এবং তা ব্যাকটেরিয়ামুক্ত রাখতে আপেল সাইডার ভিনিগার দারুণ কার্যকর। গলা ধরে যাচ্ছে বুঝতে পারলেই এককাপ পানিতে এক বা দুই চাচামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার মিশিয়ে গার্গল করুন, অল্প অল্প করে খেতেও পারেন। তবে এই মিশ্রণের আগে ও পরে প্রচুর পানি পান করবেন।

Kashi

স্টিম
স্টিম আপনার পোস্ট নেজাল ড্রিপিং কমায়, ফলে কাশিও কমতে বাধ্য। প্রতিদিন সকালে ও বিকালে স্টিম নিলেই পার্থক্যটা বুঝতে পারবেন।

এইচএন/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]