পাঁচ মুক্তিযোদ্ধাকে ঊনবাঙাল সম্মাননা

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৪৬ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

‘আমরা হারব না’ এই থিমের উপর সাজানো অনুষ্ঠানমালা দিয়ে ১৬ ডিসেম্বর নিউ ইয়র্কে জমকালো বিজয় দিবস উযদাযাপন করেছে শিল্প-সাহিত্যের সংগঠন ঊনবাঙাল। সারাদিনের অনুষ্ঠানসূচিকে তিন পর্বে ভাগ করা হয়েছে। প্রথম পর্বে ছিল প্রখ্যাত শিল্পীদের পাশাপাশি ক্ষুদে শিল্পীদের মুক্তিযুদ্ধের চিত্রাঙ্কণ।

চারুকলা ইন্সটিটিউটের সাবেক ডিন মতলুব আলী, শিল্পী রাগীব আহসান এবং শিল্পী কামরুন মনির সাথে ছিলেন এক ঝাঁক ক্ষুদে শিল্পী। তারা সারাদিন ধরে ‘মুক্তিযুদ্ধ এবং বাংলাদেশ’ এই থিমের ওপর ছবি আঁকেন। এই পর্বটি উদ্বোধন করেন মতলুব আলী এবং পরিচালনায় ছিলেন শামীম আল আমিন। এই পর্বে বক্তব্য রাখেন রাগীব আহসান, কাজী জহিরুল ইসলাম, আনওয়ার লাভলু, শাহ আলম দুলাল। দ্বিতীয় পর্বে ছিল ঊনবাঙাল পরিবেশিত মুক্তিযুদ্ধের গান কবিতা দিয়ে নির্মিত গীতি আলেখ্য ‘আমরা হারব না’।

litareture

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম, ডিএল রায়, গোবিন্দ হালদার প্রমূখের লেখা গান এবং সৈয়দ শামসুল হক, শামসুর রাহমান, রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ এবং কাজী জহিরুল ইসলামের লেখা কবিতা দিয়ে নির্মিত গীতি আলেখ্যটিতে অংশগ্রহণ করেন মিতা হোসেন, ডানা ইসলাম, রাজিয়া নাজমী, মুক্তি জহির, রুমা আলম, তাহরীনা প্রীতি, কামরুন মনি, নিশি হোসেন, ক্রিস্টিনা লিপি রোজারিও, শুক্লা রায়, চামেলী গোমেজ, শাহ আলম দুলাল, মাহবুব হাসান, ফেরদৌস নাজমী।

এই পর্বে স্বরচিত মুক্তিযুদ্ধের কবিতা ও ছড়া পাঠ করেন শাহ আলম দুলাল, লুৎফা শাহানা, মতলুব আলী, মিতা হোসেন, রওশন হক, রাজু ভৌমিক প্রমুখ। মুক্তিযুদ্ধের কবিতা আবৃত্তি করেন আনওয়ার লাভলু, ফারুক আযম এবং খাইরুল ইসলাম পাখি।

litareture

তৃয়ীয় পর্বে ছিল ‘রণাঙ্গনের স্মৃতি’ ও মুক্তিযোদ্ধাদের ঊনবাঙাল সম্মাননা প্রদান। এই পর্বে পাঁচজন বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ টিপু সুলতান, মাহবুব হাসান, ফেরদৌস নাজমী, আলী সাঈদ টিপু এবং মিয়া হেলালী তাঁদের গেরিলা যুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন। সেই দুঃসহ নয়মাসের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তাঁরা বারবার আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন, মুক্তিযোদ্ধাদের চোখে জল দেখে দর্শকরাও আবেগাপ্লুত হয়ে কাঁদতে শুরু করেন।

এই পর্বটি উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট লেখক ও সাংবাদিক মনজুর আহমদ। তিনি তাঁর উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, আসাধারণ থিম, আমরা হারব না। সারাটা দিন মুক্তিযুদ্ধের কবিতা, চিত্রাঙ্কণ, গান, স্মৃতিচারণের মধ্য দিয়ে এটিই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে, যে সাহস এবং চেতনা নিয়ে বাংলার বীর ছেলেরা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল সেই সাহস এবং চেতনা মরে যায়নি।

litareture

আমাদের কেউ হারাতে পারবে না। মুক্তিযুদ্ধের তৃতীয় প্রজন্ম কাজী আবরার জহির এই পর্বে বক্তব্য রাখেন এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, বাঙালি জাতিসত্তাকে সমুন্নত রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। ঊনবাঙালের পক্ষ থেকে এই পাঁচ মুক্তিযোদ্ধাকে ‘ঊনবাঙাল সম্মাননা ২০১৮’ প্রদান করা হয়।

এইচআর/জেআইএম