মানবকণ্ঠের সম্পাদক হলেন আনিস আলমগীর


প্রকাশিত: ০২:৪৬ পিএম, ০১ জানুয়ারি ২০১৭

দৈনিক মানবকণ্ঠের সম্পাদক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন খ্যাতিমান সাংবাদিক আনিস আলমগীর। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ১ জানুয়ারি থেকে পত্রিকাটির সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে গুলশান-১ এ পত্রিকার কার্যালয়ে আসেন তিনি। এ সময় আশিয়ান সিটির ব্যাবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া, মানবকণ্ঠের প্রকাশক জাকারিয়া চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আবু বকর চৌধুরী, ডেপুটি এডিটর ও প্রধান প্রতিবেদক নজমুল হক সরকার তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। বিকেলে সংবাদ বিভাগের অন্যদের সঙ্গে তিনি পরিচিত হন। এ সময় তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান মানবকণ্ঠের সাংবাদিকরা।

আনিস আলমগীরই একমাত্র সাংবাদিক যিনি ইরাক ও আফগানিস্তান যুদ্ধের সময় যুদ্ধক্ষেত্র থেকে সরাসরি সংবাদ পরিবেশন করেছেন।   

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে পড়াশোনা করা আনিস আলমগীর দৈনিক দেশ পত্রিকায় স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি মানবকণ্ঠে যোগদানের আগে এশিয়ান টিভিতে হেড অব নিউজ অ্যান্ড কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স পদে কর্মরত ছিলেন।

তিনি আজকের কাগজ ও ইনডিপেনডেন্ট পত্রিকার কূটনৈতিক রিপোর্টার ছিলেন। পরে আরটিভি ও বৈশাখী টিভির বার্তা প্রধান এবং চ্যানেল আইয়ের বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

২০০৩ সালে দৈনিক আজকের কাগজের পক্ষে ইরাক যুদ্ধের সংবাদ সংগ্রহ করে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি করেন তিনি। সে সময় চ্যানেল আই এবং বিবিসি বাংলায় যুদ্ধক্ষেত্র থেকে সরাসরি তার সংবাদ পরিবেশিত হলে তা দেশবাসীর মনোযোগ আকর্ষণ করে।

তিনি ২০০১ সালে আফগান যুদ্ধের সংবাদ সংগ্রহকালে তালেবানদের হাতে বন্দি হয়েছিলেন। জাতীয়ভাবে তার আলোচিত রিপোর্টের মধ্যে ছিল ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ফুটেজ দিয়ে রিপোর্ট প্রচার। ঘটনার ৩২ বছর পর ২০০৭ সালের ১৫ আগস্ট বৈশাখী টিভিতে প্রথমবারের মতো ওই ফুটেজ দিয়ে সংবাদ প্রচার করেন তিনি।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ের শিক্ষক হিসেবে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠদান করে আসছেন তিনি। তার জন্ম চট্টগ্রামে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে তিনি প্রায় ২৫টি দেশ সফর করেন।
 
আনিস আলমগীর আজ ফেসবুক স্টাটাসে লিখেছেন, ‘দৈনিক মানবকণ্ঠ- এর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব শুরু করলাম বছরের প্রথম দিন। আশিয়ান গ্রুপ-এর চেয়ারম্যান এবং মানবকণ্ঠ- এর সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া, প্রকাশক জাকারিয়া চৌধুরী এবং প্রিয় সহকর্মী আবু বকর চৌধুরী ও নজমুল হক সরকারের সঙ্গে’।

মানবকণ্ঠে সম্পাদক হিসেবে যোগদানের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মানবকণ্ঠকে আরও বিশ্বাসযোগ্য ও পাঠকপ্রিয় করতে চাই। পাশাপাশি পাঠককে ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও অনলাইনের বাইরেও বাড়তি তথ্য দিতে চাই’।

ওআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :