ব্যাঙের ছাতার মতো কিছু অনলাইন মাথাব্যথার কারণ: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৯ পিএম, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘অনেক নিউজপোর্টাল ভালো কাজ করছে, কিন্তু ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা কিছু অনলাইন মাথাব্যথার কারণ।’ বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘ক্র্যাবনিউজবিডি.কম’র উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাঙের ছাতার মতো অনলাইন পোর্টাল হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত হচ্ছে। অনেকগুলো পোর্টাল ভালো কাজ করছে। আমেরিকায়ও প্রিন্টেড পত্রিকা অনলাইন ভার্সনে আসছে, ভারতেও হচ্ছে এবং বাংলাদেশেও হচ্ছে। মানুষ এখন অনলাইনে বেশি কাজ করে। সেজন্য ভালো পত্রিকাগুলো অনলাইন সংস্করণ করেছে বহু আগেই। অনলাইন সংস্করণ আমরা রেজিস্ট্রেশনও করেছি। রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে হয়। যদি হুবহু প্রিন্টেড ভার্সন দেয়া হয় তাহলে রেজিস্ট্রেশনের দরকার নেই। যেহেতু অনলাইন ভার্সনে ডিফারেন্ট নিউজ থাকে, সেজন্য সেগুলো রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বেশিরভাগ প্রথম শ্রেণির পত্রিকা রেজিস্ট্রেশন নিয়েছে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ব্যাঙের ছাতার মতো অনলাইন মাথাব্যথার কারণ। শুধু আমাদের দেশে নয়, সব দেশেই মাথাব্যথার কারণ। এখানে প্রবণতা আছে অনলাইন পোর্টাল খুলে কিছু মানুষকে কার্ড দেয়া হয়। প্রথমত যারা এটি করছে, তারা অনৈতিক কাজ করছেন। দ্বিতীয়ত যারা এসব কার্ড নিচ্ছেন, যাদের মূল উদ্দেশ্য সাংবাদিকতা নয়, তাদের দায় সাংবাদিক সমাজের ওপর আসছে। অনেকে ফোন করে, আমাকেও ফোন করে। আমি যে সাংবাদিককে চিনি না তাদের কাউকে টেলিফোনে জবাব দেই না। অনেকগুলো অনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, বন্ধ করা হয়েছে। রেজিস্ট্রেশন একটি চলমান প্রক্রিয়া। রেজিস্ট্রেশন আমি ক্লোস করে দিতে পারি না। কিছু অনলাইন বন্ধ হবে, কিছু নতুনভাবে আসবে। আমরা আরও কিছু অনলাইনের নিবন্ধন দিয়ে ম্যাসিভ অ্যাকশনে যাবো।’

আইপি টিভি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাঙের ছাতার মতো আইপি টিভি হচ্ছে। একটা ডোমেইন নিয়ে আইপি টিভি চালু করা এবং সেটা দিয়ে নানা ধরনের অপরাধ করা সমাজের জন্য এবং রাষ্ট্রের জন্য ক্ষতিকর। সব আইপি টিভি খারাপ তা বলা যাবে না, কিছু আইপি টিভি ভালো কাজ করছে। তবে ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা কিছু আইপি টিভির বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া জরুরি।’

তিনি বলেন, ‘সংবাদের কারণে কেউ যেন অহেতুক হয়রানির শিকার না হয়। কারও বিরুদ্ধে কোনো লঘু অপরাধ যদি বড় করে প্রকাশ পায় তাহলে তার তখনই শাস্তি হয়ে যায়। লঘু অপরাধে বা গুরুতর অপরাধ ছাড়া যেন মিডিয়া ট্রায়াল না হয়। সেজন্য পিআইবির মাধ্যমে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। সমাজে-রাষ্ট্রে সবকিছু আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব না। যেখানে সেখানে ময়লা এটাতো আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত নয় দেশে। ইউরোপের অনেক দেশে সেটি আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত নয়। অনেক দেশে আইন আছে। কিন্তু আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হলেও যেখানে সেখানে ময়লা ফেলে মানুষ। এ রকম আরও অনেক বিষয় আছে।’

বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি আমার এবং মানুষের প্রত্যাশা থাকবে বিএনপি এতদিন ধরে যে অপরাজনীতি, জঙ্গি রাজনীতি ও সন্ত্রাসের রাজনীতি করে আসছিল, আজ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমাদের প্রত্যাশা থাকবে সেই রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসুক। বিএনপি পেট্রলবোমার রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসুক। যুদ্ধাপরাধীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় থেকে বেরিয়ে আসুক। বিএনপি সুষ্ঠু ধারার রাজনীতিতে ফিরে আসুক। তাতে রাজনীতি ও দেশ উপকৃত হবে।’

ক্র্যাবের সভাপতি মিজান মালিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মুরসালিন নোমানী, ক্র্যাবের প্রধান উপদেষ্টা ও সিনিয়র সদস্য শংকর কুমার দে প্রমুখ।

আইএইচআর/ইএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]