সংসদে প্রধান বিচারপতির প্রতি বাদলের ক্ষোভ


প্রকাশিত: ০৩:২৯ পিএম, ০৯ জুলাই ২০১৭
ফাইল ছবি

সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের অপসারণ-সংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে আপিল বিভাগের রায় নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে জাসদের একাংশের নেতা মঈনউদ্দিন খান বাদল প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, ‘আপনি কি স্বয়ম্ভু ভগবান?’

রোববার জাতীয় সংসদের অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে একথা বলেন তিনি। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এস কে সিনহা) নাম উল্লেখ না করে কঠোর সমালোচনা করেন তিনি। এ সময় সংসদের সভাপতিত্বে ছিলেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

বাদল বলেন, ‘বিচারক যদি এমন কাজ করে, তাতে তার বিচারক থাকা চলে না। অবিবেচনাপ্রসূত কাজ করে, অপরাধ করে তাহলে তার সাজাটা কীভাবে হবে? এখানে সব বিচারকের সাজার প্রশ্ন আসেনি। যিনি অপরাধ করেছেন তার সাজার বিষয় এসেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি যেটা বলতে চাই। ন্যাচারাল জাস্টিস বলে একটা কথা আছে। সেই ন্যাচারাল জাস্টিসের ব্যাপারে বক্তব্য হলো- আপনি আপনার বিচার করতে পারেন না। আপনি কি স্বয়ম্ভু ভগবান যে আপনি নিজেই নিজের বিচার করবেন। আপনি কি আল্লাহ হয়ে গেছেন, যে বলিলাম আর হয়ে গেল?’

তিনি আরও বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির ইমপিচমেন্ট (অপসারণ) হয় এখানে (সংসদে)। প্রধানমন্ত্রীর ইমপিচমেন্ট হয় এখানে। স্পিকারের ইমপিচমেন্ট হয় এখানে। আর আপনি (প্রধান বিচারপতি) বলছেন আমার বিচার আমি করব।’

বাদল বলেন, ‘সংসদের কোনো আইন যদি বেসিক ট্রাকচার ক্ষতিগ্রস্ত করে সেটা আদালত দেখতে পারেন। কিন্তু ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বেসিক ট্রাকচারের কোথায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেটা প্রমাণ করতে হবে। ৯৬ অনুচ্ছেদ আমরা প্রতিস্থাপন করেছিলাম। এটা বেসিক ট্রাকচারের কোথায় আঘাত করেছে আমরা দেখতে চাই।’

প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে সম্প্রতি আপিল বিভাগের রায় দিয়েছেন। এর ফলে বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা হারিয়েছে সংসদ। বর্তমান সরকার ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে ১৯৭২ সালের সংবিধান প্রতিস্থাপিত করেছিল। ওই সংবিধানের ৯৬ ধারা অনুযায়ী নৈতিক স্খলনজনিত কারণে বিচারপতিদের অপসারণ করতে পারত সংসদ।

এইচএস/বিএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :