বিনামূল্যে গাড়ি রেজিস্ট্রেশন সুবিধা পেলেন মুক্তিযোদ্ধারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৩ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বিনামূল্যে গাড়ি রেজিস্ট্রেশনের সুবিধা পেলেন যোদ্ধাহত ও খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্ত্রীরা। এ সুবিধা দিতে ‘মোটর ভেহিকেল রেগুলেশন, ১৯৮৪ (মোটরযান বিধিমালা, ১৯৮৪)’ সংশোধন করে গেজেট জারি করেছে সরকার। গত ২৩ সেপ্টেম্বর এটি জারি করা হয়।

সংশোধিত বিধিমালা অনুযায়ী, যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা, মৃত্যুবরণকারী যোদ্ধাহত ও খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে গাড়ি (মোটরযান) রেজিস্ট্রেশন করতে কোনো ফি দিতে হবে না। তবে সাধারণ মুক্তিযোদ্ধারা এ সুবিধা পাবেন না।

এতে আরও বলা হয়, এ সুবিধার আওতায় সর্বোচ্চ ২৫০০ সিসি পর্যন্ত ক্ষমতার ইঞ্জিনের একটি গাড়ি বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশন সুবিধা দেবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। রেজিস্ট্রেশনের সময় মুক্তিযোদ্ধার সনদ দাখিল করতে হবে।

তবে এ গাড়ির মালিকানা হস্তান্তর বা পরিবর্তন হলে সেটি অবৈধ হিসেবে গণ্য হবে। সরকার এ গাড়ি জব্দ করতে পারবে। তবে নির্ধারিত রেজিস্ট্রেশন ফি পরিশোধের পর মালিকানা হস্তান্তর বৈধ হবে বলেও সংশোধিত বিধিমালায় বলা হয়েছে।

বিআরটিএ থেকে জানা গেছে, বিশেষ মুক্তিযোদ্ধাদের বিনামূল্যে গাড়ি রেজিস্ট্রেশন দিতে বিআরটিএ ২০১৫ সালের ২৮ ডিসেম্বর সংশোধিত মোটরযান বিধিমালার খসড়া প্রকাশ করে। এ বিষয়ে কারও আপত্তি বা পরামর্শ থাকলে ২১ দিনের মধ্যে জানাতে বলা হয়। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে কেউ মতামত দেয়নি। এখন সেটি চূড়ান্ত করে গেজেট প্রকাশ করা হলো।

আরএমএম/ওআর/এমএস

শুধু যুদ্ধাহত ও খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্ত্রীরা এ সুবিধা পাবেন না