এ দেশ হবে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের : প্রধানমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১৯ পিএম, ২৭ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ০৮:২৪ পিএম, ২৭ মার্চ ২০১৮
ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায় তারা যেন অার ক্ষমতায় না অাসে। অাগামীতে এ দেশ হবে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের। রাজাকার, অাল বদর, অাল শামস, খুনিরা অার কোনোদিন যেন ক্ষমতায় অাসতে না পারে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুফল মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেবো। একটা মানুষ ঘর ছাড়া থাকবে না। একটা মানুষ অন্ধকারে থাকবে না।

মঙ্গলবার ফার্মগেটে খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে অায়োজিত অালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

অালোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অাওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অালোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন দলটির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী অামির হোসেন অামু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল অাহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ড. হারুন অর রশিদ, অধ্যাপিকা সাদেকা হালিম, এ কে এম এনামুল হক শামীম প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অমাদের রাজনীতি মানুষের জন্য। এ দেশের মানুষের জন্য কতটুকু করতে পারলাম, কতটুকু দিতে পারলাম সেটাই হলো প্রকৃত রাজনীতি। অার দুর্নীতি করে টাকা কামালে সেগুলো রেখেই কবরে যেতে হবে। তাহলে দুর্নীতি করে লাভ কি?

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অাবারও মসজিদের ইমাম, শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রতি অাহ্বান জানিয়ে বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিষয়ে কোনো ছাড় দেবেন না। এসব সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করবেন। যারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী তারা দেশ ও মানবতার শত্রু। কোনো ছেলে-মেয়ে যেন জঙ্গিবাদে না জড়ায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। ছেলে-মেয়েরা কোথায় যায়, কার সঙ্গে মেশে সেদিকে অভিভাবকদের নজর রাখতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের একজন ভদ্রলোক অামাদের দুর্নীতিবাজ বানানোর জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন। কিন্তু পারেননি। শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হন। যিনি একটি ব্যাংকের এমডি হতে না পেরে পদ্মা সেতুর মতো একটি সেতু বন্ধ করে দেয়ার পাঁয়তারা করেছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ২০২১ সালে অামরা যখন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবে, তখন বাংলাদেশ হবে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত একটি দেশ। ২০২০ সালে অামরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন করব অার ২০৪১ সালে বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ। এ লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। দেশটি গড়ার জন্য তিনি সবাইকে এগিয়ে অাসার অাহ্বান জানান।

এফএইচএস/জেএইচ/এমএস