গ্লোরিয়া জিনসের খাবারে বিএসটিআইর নকল লোগো

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২০ পিএম, ০৭ জুন ২০১৮

* গ্লোরিয়া জিনসকে তিন লাখ টাকা জরিমানা
* রাইস অ্যান্ড নুডলস রেস্টুরেন্টে পচা-বাসি খাবার
* দিল্লি দরবারকে দুই লাখ টাকা জরিমানা
* রোজার পরও অভিযান চলবে

ইন্টারন্যাশনাল গ্লোরিয়া জিনসের খাদ্যপণ্যে ব্যবহার করা হয় বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) নকল লোগো। বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে অভিযান চালিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ভ্রাম্যমাণ আদালত এর সত্যতা পেয়েছে।

দেশের একমাত্র মান নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসটিআইর এই নকল লোগো লাগানোসহ নানা অভিযোগে রেস্টুরেন্টটিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে শুরু করে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলা অভিযানে ডিএমপির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমান নেতৃত্ব দেন।

মশিউর রহমান বলেন, অভিজাত রেস্টুরেন্ট গ্লোরিয়া জিনস কফিতে সয়া সর্স, ভিনেগার, ব্রাউন সুগারসহ কয়েকটি পণ্যে বিএসটিআইয়ের নকল লোগো লাগানো হয়েছে। কিছু ফ্রজেন খাদ্যে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ লাগানো নেই। আরও কিছু খাদ্যপণ্যে ছত্রাক পাওয়া যায়। এসব অভিযোগে তাদের ৩ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে তিন কর্মচারীর তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, এ ছাড়া অভিযানের সময় রাইস অ্যান্ড নুডুলস রেস্টুরেন্টকে পচা ও বাসি খাবার রাখার দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই ভবনে আরেক অভিজাত রেস্টুরেন্ট দিল্লি দরবারকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানে তাদের খাবারে দুর্গন্ধ পাওয়া গেছে। এমন খাবার সংরক্ষণ করার অভিযোগে তাদের সতর্ক করা হয়েছে। বলা হয়েছে, পরবর্তীতে এরকম পাওয়া গেলে রেস্টুরেন্ট বন্ধ করা হবে।

মশিউর রহমান বলেন, অভিযান রোজার পরেও অব্যাহত থাকবে। গত তিন বছরে ডিএমপিতে চাকরিকালীন অবস্থায় অভিযান অব্যাহত রাখার ফলে খাদ্যে ভেজাল অনেকটা সহনীয় পর্যায়ে চলে এসেছে। আগামীতে জনগণ যদি সহযোগিতা করে তবে খাদ্যে ভেজাল শূন্য পর্যায়ে নিয়ে আসা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

এআর/জেডএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]