নীরব ঢাকা সরব হচ্ছে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:৫৫ পিএম, ১৮ জুন ২০১৮

রাজধানী ঢাকা আবার সরব হতে শুরু করেছে। ঈদের ছুটির কারণে গত তিনদিন ঢাকার বিভিন্ন সড়কে যানবাহন ও যাত্রী সংখ্যা কম থাকলেও আজ (সোমবার) অনেকটাই বেশি রয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার রাস্তাঘাট প্রায় জনশূন্য হয়ে পড়েছিল। ঢাকার চিরচেনা যানজট, বাস-টেম্পোসহ বিভিন্ন যানবাহনে উঠতে ধাক্কাধাকি, কালো ধোঁয়া, ধুলোবালি, বায়ু দূষণ এগুলো যেন কিছুই ছিল না। তবে ঈদের ছুটি শেষে আবারও ঢাকা ফিরতে শুরু করেছেন কর্মজীবী মানুষ।

Dhaka

ঈদুল ফিতরের ছুটি শেষে সরকারি অফিস আদালত আজ (সোমবার) থেকে খুলে যাওয়ায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অধিকাংশই কর্মস্থলে যোগদান করছেন। অনেকে আবার আজ সকালেই ঢাকায় ফিরেছেন। তবে ঢাকার সেই চিরচেনা রূপ ফিরে আসছে সপ্তাহ খানেক লাগবে বলে বলছেন অনেকেই।

Dhaka

সোমবার সরজমিনে রাজধানীর ধানমন্ডি, কলাবাগান, শাহবাগ, বাংলামোটর, মগবাজার ও পান্থপথসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, গত তিনদিনের তুলনায় আজ রাজপথে যানবাহনের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে বেড়েছে। তবে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় যানবাহনের সংখ্যা এখনও অনেক কম। গত তিনদিন বাসগুলো প্রায় খালি চললেও আজ অধিকাংশ বাসে যাত্রী দেখা যায়। বিভিন্ন স্টপেজেও যাত্রী উঠানামা করতে দেখা যায়।

Dhaka

তিনদিন পর সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতালের আউটডোরে আজ থেকে সেবা শুরু হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ), ঢাকার মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল ও বারডেম হাসপাতাল ঘুরে দেখা গেছে, আউটডোরে টিকেট কেটে রোগীরা চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় প্রতিটি হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা কম।

Dhaka

বিএসএমএমইউ হাসপাতালের আউটডোরে মারুফা খাতুন নামে এক মহিলা রোগী জানান, কয়েকদিন যাবত শরীরে ভীষণ চুলকানি হওয়ায় গার্মেন্টসকর্মী মেয়ে নিয়ে আজ সকালে হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন। রোগী কম থাকায় ডাক্তারও ভালো করে দেখে ওষুধ লিখে দিয়েছেন।

ঢামেক হাসপাতালের আউটডোরের বারান্দায় ক্র্যাচে ভর দিয়ে এক তরুণ অর্থোপেডিকস বিভাগের দিকে যাচ্ছিলেন। তিনি জানান, ঈদের ২০ দিন আগে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় হাঁটুতে আঘাত পান। চিকিৎসক ব্যান্ডেজ করে দিয়ে তিন সপ্তাহ পর আসার পরামর্শ দিয়েছেন। ডাক্তারের পরামর্শে আজ ডাক্তার দেখাতে এসেছি।

এমইউ/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :