নির্যাতিত নারীদের ক্ষতিপূরণ আদায়ের বিধান রেখে আইন পাস

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪১ পিএম, ০৯ জুলাই ২০১৮

নারীসহ বিদেশে কর্মরত নির্যাতিত বা বিপদগ্রস্ত অভিবাসী কর্মীদের উদ্ধার, ক্ষতিপূরণ আদায় ও আইনগত সহায়তা প্রদানের বিধান রেখে ‘ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড বিল ২০১৮’ পাস করেছে সংসদ।

সোমবার জাতীয় সংসদে স্থিরকৃত আকারে বিলটি পাস হয়। এর আগে বিলে প্রস্তাবিত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের পরিবর্তে যে কোনো তফসিলি ব্যাংকে কল্যাণ বোর্ডের ব্যাংক হিসেব খোলা সম্পর্কিত বিরোধী দলীয় সদস্য ফখরুল ইমামের আনা সংশোধনীটি গৃহীত হয়।

অপর সংশোধনী, বাছাই কমিটিতে পাঠানো ও জনমত যাচাইয়ের প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। বিলটি পাস করার প্রস্তাব করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি।

বিলে বলা হয়, আইনের উদ্দেশ্য পূরণে ‘ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড’ প্রবাসীদের কল্যাণার্থে প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন। বিদেশে কর্মরত নির্যাতিত, দুর্ঘটনায় আহত, অসুস্থতা বা অন্য কোন কারণে বিপদগ্রস্ত অভিবাসী কর্মীদের উদ্ধার, ক্ষতিপূরণ আদায়, চিকিৎসা সহায়তা প্রদান ও আইনগত সহায়তা প্রদান করবে।

বিলে নারী অভিবাসী কর্মীদের জন্য বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে আলাদা অনুচ্ছেদ যোগ করে উপরোক্ত সুবিধাদির পাশাপাশি দেশে-বিদেশে হেল্প ডেস্ক স্থাপন ও সেইফ হোম পরিচালনার বিধান যুক্ত করা হয়।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়, বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি শ্রমিক ও স্বদেশে অবস্থানরত তাদের পরিবারকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য ১৯৯০ সাল থেকে ‘ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড’ পরিচালনা করে আসলেও বোর্ড গঠনের জন্য সংসদে প্রণীত কোন আইন নেই।

আদালত কর্তৃক বাতিলকৃত ১৯৮২ সালের ইমিগ্রেশন অ্যাক্টের অধীনে প্রণীত ২০০২ সালের ‘ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড’ বিধিমালার আওতায় বর্তমান কার্যক্রম চলছে। তাই সংসদ কর্তৃক প্রস্তাবিত আইন প্রণয়ন করা হয়। আইনটি গত বছর ২০ মার্চ মন্ত্রিসভা অনুমোদন করে।

এইচএস/এমআরএম/পিআর