সয়াবিন বলে পামওয়েল ব্যবহার করায় জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৮

নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপণ্য তৈরি ও মোড়কে উৎপাদন, মেয়াদোত্তীর্ণ ও খুচরা মূল্য লেখা না থাকা এবং সয়াবিন বলে খাবারে পামওয়েল তেল ব্যবহার করায় পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার রাজধানীর মোহাম্মদপুর তাজমহল ও সলিমুল্লাহ রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব প্রতিষ্ঠানটিকে জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- তাজমহল রোডের বিক্রমপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডার, মুন্না মামার কাবাব ঘর, পিউর মিল্ক সেন্টার ও সলিমুল্লাহ রোডের সেলিম কাবাব ঘর এবং জসীম হোটেল।

অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউস। এ সময় সার্বিক সহযোগিতা করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন)-১ এর সদস্যরা।

জান্নাতুল ফেরদাউস বলেন, রোববার মোহাম্মদপুর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৩৭ ও ৪৩ ধারায় মোট ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এর মধ্যে দই লিকুইড দুধসহ অন্যান্য মিষ্টি জাতীয় খাদ্য পণ্যে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ এবং খুচরা মূল্য না থাকায় বিক্রমপুর মিষ্টান্ন ভাণ্ডারকে ৩৭ ধারায় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি ও সয়াবিন তেল বলে খাবারে পামওয়েল ব্যবহার করায় মুন্না মামার কাবাব ঘরকে ১০ হাজার টাকা, সেলিম কাবাব ঘরকে ১০ হাজার টাকা, পিউর মিল্ক সেন্টারকে ১৫ হাজার টাকা এবং জসীম হোটেলকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসআই/জেএইচ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :