হঠাৎ চাপ বেড়েছে বাস কাউন্টারগুলোতে

জসীম উদ্দীন
জসীম উদ্দীন জসীম উদ্দীন , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০০ পিএম, ১০ আগস্ট ২০১৮

হঠাৎই চাপ বেড়েছে রাজধানীর কল্যাণপুর ও গাবতলীর বাস কাউন্টারগুলোতে। যারা ঈদের আগাম টিকিট কিনতে পারেননি তারা ছুটির দিন হওয়ায় শুক্রবার সকাল থেকে ভিড় করেছেন কাউন্টারগুলোতে।

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে গত ৫ আগস্ট থেকে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবারই জানা গেছে, সম্ভাব্য ২২ আগস্ট ঈদের দিন হিসেব করে ৪ দিনের টিকিট শেষ হয়ে গেছে।

শুক্রবার সকাল ১০টায় রাজধানীর কল্যাণপুরের খালেক পাম্পের পাশের সোনিয়া ও বিনিময় পরিবহনের কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায়, টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড়। পরিবহন দু’টির কেবল শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসই রয়েছে। রাজশাহী, নওগাঁ ও টাঙ্গাইর রুটের এ পরিবহন দু’টির অধিকাংশ দিনের টিকিট বিক্রি শেষ হয়েছে বলে জানান টিকিট বিক্রেতা আরিফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ১৯, ২০ ও ২১ তারিখের টিকিট নেই। ১৭, ১৮ তারিখের কিছু সিট খালি আছে সেসবই বিক্রি চলছে।

কাউন্টারের সামনে লম্বা লাইনে দাঁড়ানো রেজাউল ইসলাম বলেন, রাজশাহী রুটের অধিকাংশ বাসের টিকিট শেষ। অনলাইনে ঢুকেও টিকিট ক্রয় করা সম্ভব হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে লাইনে এসে দাঁড়ানো। জানি না শেষ অবধি টিকিট মিলবে কি না।

এবার শ্যামলী পরিবহনের টিকিট বিক্রি হচ্ছে কল্যাণপুর, শ্যামলী ও আসাদগেট কাউন্টার থেকে। সব রুটের সব দিনের পর্যাপ্ত টিকিট রয়েছে বলে নোটিস লাগানো হলেও কাঙিক্ষত মানের টিকিট না পাওয়ার অভিযোগ যাত্রীদের।

bus

কল্যাণপুরে শ্যামলী কাউন্টারে কথা হয় রবিউল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, ১৯ ও ২০ তারিখের টিকিট শেষ। ১৮ তারিখের টিকিট থাকলেও সিট পেছনে। কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ রুটের এ যাত্রী বাধ্য হয়ে ১৮ তারিখ রাতের পেছনে সিটের টিকিট কিনেছেন।

তবে শ্যামলী কাউন্টারের ম্যানেজার আলমগীর হোসেন জানান, আজ শুক্রবার হওয়ায় হঠাৎই টিকিট প্রত্যাশীদের চাপ বেড়েছে। যথাসম্ভব চেষ্ট করা হচ্ছে টিকিট দেয়ার জন্য।

বাস কাউন্টারগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্টের টিকিট শেষ হয়ে গেছে। কোনো কোনো বাস কাউন্টার এই চার দিনের টিকিট শেষ বলে নোটিস ঝুলিয়েছে।

গাবতলীতে হানিফ এন্টারপ্রাইজের কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায়, সেখানেও উপচেপড়া ভিড়। তবে অধিকাংশ দিনের টিকিট না থাকায় হতাশ হয়ে অন্য বাসের কাউন্টারে যেতে দেখা যায় অনেককেই।

গাবতলী কাউন্টারে কথা হয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটের যাত্রী উজ্জ্বলের সঙ্গে। তিনি বলেন, ঘণ্টাখানেক লাইনে দাঁড়িয়ে জানলাম কাঙ্ক্ষিত দিনের টিকিট নেই। বাধ্য হয়ে রাজশাহীর টিকিট কেনা।

হানিফ পরিবহনের জিএম মোশাররফ হোসেন বলেন, চাহিদা বেশি থাকায় ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্টের টিকিট শেষ। তা নোটিস বোর্ডের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। অন্য রুটের কিছু টিকিট পাওয়া যাচ্ছে।

জেইউ/এনএফ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :