ঢাকা আজও ফাঁকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৩ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৮

শনিবার ঈদের চতুর্থ দিন। এদিন ঢাকার বেসরকারি অফিস খুললেও সাপ্তাহিক ছুটির কারণে বন্ধ রয়েছে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো। ঈদে ১ কোটি মানুষ ঢাকা ছাড়লেও ফিরতে শুরু করেছে হাতেগোনা কয়েকজন। রাজধানীতে এখনো কাটেনি ঈদের আমেজ, ঢাকা এখনো ফাঁকা।

সরেজমিনে রাজধানীর মালিবাগ, রামপুরা, মিরপুর, গুলশান, বাড্ডা, তেজগাঁও, মহাখালী, যাত্রাবাড়ী, ফার্মগেটে তেমন ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি। প্রাইভেট কার, সিএনজি-রিকশার সংখ্যাও ছিল অনেক কম।

এসব এলাকা ঘুরে চোখে পড়েনি কোন যানজট কোলাহল। সিটিং বাসে রাজধানীর পল্টন থেকে উত্তর বাড্ডা এলাকায় যেতে সময় লাগতো কমপক্ষে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা, এখন লাগছে সর্বোচ্চ ৩০ মিনিট।

Dhaka

ব্যাংক আর শেয়ারবাজার বন্ধ থাকায় ঢাকার ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা মতিঝিল ছিল প্রায় জনশূন্য। রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা কম, যানজটও কম, নেই হকারদের কোলাহল।

রাজধানীর বিভিন্ন রুটের অধিকাংশ বাস ছিল ফাঁকা। রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন, মহাখালী- সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল ও সদরঘাটের লঞ্চ টার্মিনালে ঢাকায় ফেরা মানুষের ভিড় থাকলেও রাস্তায় এর প্রভাব ছিল না।

Dhaka

মিরপুরের পাইকপাড়ার বাসিন্দা ফাহিম রহমান বলেন, সোমবার থেকেই ঢাকার সড়কগুলো ফাঁকা ছিল। আজও এমন। সদরঘাট থেকে মিরপুর ১০ যেতে ৪৫ মিনিট সময় লেগেছে। যেটা স্বাভাবিক সময়ে ৩ ঘণ্টায়ও সম্ভব ছিল না।

সকালে সাভারের গেন্ডা থেকে গুলিস্তানে আসা যাত্রী রাহী আক্তার বলেন, ঢাকায় ঢোকার পথে গাবতলীতে যান চলাচলে কিছু ধীরগতি ছিল। কিন্তু অন্য কোথাও জ্যাম পাইনি। সড়ক পুরোটাই ফাঁকা ছিল।

এআর/এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]