৬৭ লাশের বিনিময়ে নতুন দুটি বিদ্যুতের খুঁটি!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৪১ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

‘এতোদিন কি কেউ লক্কড়ঝক্কড় মার্কা বিদুতের খুঁটিগুলো দেখে নাই? এ মহল্লার সব খুঁটিই তো ব্রিটিশ আমলের। লাইনের তারের অবস্থা আরও খারাপ। অহন ৬৭টা মানুষ মরার পর হুশ অইছে। তড়িঘড়ি করে নতুন দুইটা ইলেকট্রিক পোল বসানো অইল।’

শনিবার দুপুর ১টায় চকবাজারের চুড়িহাট্টা বড় মসজিদের সামনে দাঁড়িয়ে এভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মহল্লার কয়েকজন প্রবীণ।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিদুৎ বিভাগের লোকজন ওয়াহেদ ম্যানশনের বিপরীত দিকের রাস্তা ও বড় মসজিদের কোণায় নতুন দুটি বিদুতের খুঁটি বসিয়ে বিদুৎ সংযোগ পুনঃস্থাপনের চেষ্টা চালাচ্ছেন।

jagonews

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুর রশীদ বলেন, ‘তিনদিন যাবত বিদুৎহীন অবস্থায় আছি। গ্যাস সংযোগও বন্ধ ছিল। গতকাল চালু হয়।’

তিনি বলেন, ‘কি যে ভয় পেয়েছিলাম, কোনো মতে জানটা বাঁচছে।’

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, চুড়িহাট্টার প্রতিটি সরু গলিতে বিদুতের খুঁটি জরাজীর্ণ। অসংখ্য তারের জড়াজড়ি সর্বত্র। মহল্লাবাসীর পক্ষ থেকে ছোট্ট একটি কাগজে নোটিশ আকারে মহল্লা থেকে কেমিক্যাল কারখানা অপসারণের দাবি সংবলিত নোটিশ ঝুলতে দেখা যায়।

আবসার আলী নামে এক বাড়ির মালিক বলেন, ‘পুরান ঢাকায় বিদুৎ সংযোগের খুঁটি ও তারের অবস্থা খুবই খারাপ। এগুলো সংস্কার না করলে যেকোনো সময় আরও ভয়াবহ আগুনে ব্যাপক প্রাণহানির ঝুঁকি রয়েছে।’

পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টার ওয়াহেদ ম্যানশনে বুধবার (২০ ফেব্রুযারি) রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। রাত ১০টা ৩৮ মিনিটে আগুনের সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় শুক্রবার সকাল পর্যন্ত মোট ৬৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত ও দগ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪১ জন। এদের মধ্যে দু’জনকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে। বাকিদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

jagonews

অগ্নিকাণ্ডের কারণ উদঘাটনসহ দুর্ঘটনার সার্বিক বিষয় তদন্তের জন্য সুরক্ষাসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (অগ্নি অনুবিভাগ) প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তীকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়াও দোষীদের চিহ্নিত করতে ১১ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)। অগ্নিকাণ্ডের কারণ অনুসন্ধান, প্রাথমিক ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ এবং অগ্নিদুর্ঘটনা পুনরাবৃত্তিরোধে সুপারিশ প্রদানের জন্য ১২ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়।

এমইউ/এনডিএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :